অনলাইন পাসওয়ার্ডের বিষয়ে সতর্ক থাকুন

0
44

তথ্য প্রযুক্তি।।

অনলাইন ব্যাংকিং, ইন্টারনেট শপিং থেকে শুরু করে ফেইসবুক আর টুইটারের মতো সামাজিক মাধ্যমগুলোর অ্যাকাউন্টে পাসওয়ার্ড সবার কাছেই গুরুত্বপূর্ণ।

এইসব অ্যাকাউন্টের এতসব পাসওয়ার্ড মনে রাখাও অনেক সময় হয়ে উঠে কষ্টকর, আর এ ক্ষেত্রে অনেকেই সহজে মনে রাখার মতো পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন যেমন: ‘password’ বা ‘১২৩৪৫৬৭’-এর মতো শব্দ।

মানুষ নিজের জীবন সহজ করতে এসব সহজ পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে অনলাইন প্রতারকদের কাজও সহজ করে দিয়েছে, এমনটাই সতর্ক করেছেন গবেষকরা।

সাম্পতিকি বছর ইয়াহু-র ব্যবহারকারীদের বিশাল ডাটাবেইসর করুন অবস্থায় পড়ে যখন তাদের পাসওয়ার্ড প্রকাশ হয়ে যায়। এ সময় অধিকাংশ ক্লাইন্টের পাসওয়ার্ডই ছিল- ‘পাসওয়ার্ড’ ও ‘১২৩৪৫৬৭’। সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা পাসওয়ার্ডের তালিকায় প্রথম দশটির মধ্যে ‘কোয়ার্টি’ আর ‘ABC ১২৩’ ও ছিল বলে জানান ল্যাঙ্কাস্টার ইউনিভার্সিটি’র একজন বিশেষজ্ঞ। এসব পাসওয়ার্ড হ্যাকারদের জন্য ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টে প্রবেশ সহজ হয়ে যায় বলেও জানান তিনি।

পাসওয়ার্ড অনুমানের বিষয়ে এই গবেষণার একজন গবেষক ড. জেফ ইয়ান বলেন, ‘কেন কেউ অবশ্যম্ভাবী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন? আমি মনে করি, এর একটি প্রধান কারণ হচ্ছে, তারা এ বিষয়ে অসতর্ক বা তারা অনলাইন নিরাপত্তা ঝুঁকি বোঝেন না।’

ইয়াহু ডাটা থেকে পাওয়া পাসওয়ার্ডগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হওয়া পাসওয়ার্ডের তালিকায় আরও ছিল- Welcome, sunshine, Ninza ইত্যাদি। আর অনেকে তাদের নাম, বয়স আর জন্মদিনের তারিখের সমন্বয়েও পাসওয়ার্ড দিয়েছেন।

ল্যাঙ্কাস্টার, পেকিং আর চীনের কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা পাসওয়ার্ড আন্দাজ করতে একটি Block অ্যালগরিদম বানিয়েছেন। এ ক্ষেত্রে হ্যাকারদের তথ্য ফাঁস করা বিভিন্ন ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের উপর নির্ভর করেছেন বিশেষজ্ঞ গবেষকরা।

এই Block অ্যালগরিদমের মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টের ৭৫ শতাংশের পাসওয়ার্ডই সঠিকভাবে অনুমান করা হয়েছে। আর যারা নিরাপত্তা নিয়ে একটু সতর্ক, তাদের ক্ষেত্রে এই হার তিন শতাংশ।