এবার সরকারি জমি দখল মিশনে এমপি হারুন

0
160

সময়ের বার্তা ডেস্ক।।

ঐতিহ্যবাহি রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের কোটি টাকার জমি আত্মসাতের চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে জমি আত্মসাত করে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব উচ্ছেদের পায়তারায় স্কুলের প্রধান শিক্ষককে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলা শহরের প্রান কেন্দ্রের এ জমি (পুরাতন সোনালী ব্যাংক ভবন ও শেখ রাসেলস্মৃতি সংসদ ভবনসহ জমি) স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনের ক্ষমতাসীন দলের এমপি বিএইচ হারুন ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজের ছোট ভাই গালুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক কামাল ও আস্থাভাজন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজুসহ ৪ নেতাকে অবৈধভাবে স্থায়ী লিজ দেয়ার খবর ছড়িয়ে পরে। এতে কয়েকজন নেতা ক্ষেপে গিয়ে এমপির কার্যক্রম বর্জণ করার পরে তাদের বশে রাখার জন্য আরও ৩ নেতাকে আফসার আলী আকন মিলনায়তন এবং প্রাক্তন ছাত্র মিলন কেন্দ্রের (বর্তমানে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব) জমি দেয়ার জন্য অবৈধভাবে রেজুলেশন করলে এ নিয়ে আ’লীগের নেতকর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের আফসার আলী আকন মিলনায়তন এবং প্রাক্তন ছাত্র মিলন কেন্দ্রের পুরাতন জরার্জিন ভবনটি সংস্কার করে ১৫শ’ টাকা মাসিকভাড়ায় ৫ বছরের ভাড়া চুক্তিতে নেয় রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব’র সাংবাদিকরা। কিন্তু বনানীর রেন্ট্রি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের শিকারের ঘটনা সকল গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হলে এমপি হারুন সাংবাদিক বিদ্বেষী হয়ে ওঠেন।

ওই সময়ে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব’র সাংবাদিকরা তাদের গণমাধ্যমে স্থানীয় আ’লীগের নেতাকর্মীদের প্রতিক্রিয়ার সংবাদ প্রকাশ করায় এমপি হারুন নাখোশ হন তাদের ওপরও। এসব কারনে স্কুলের সভাপতি এমপি হারুনের নির্দেশে সাংবাদিক ক্লাবকে উচ্ছেদের চেষ্টা শুরু করারা ধারাবাহিকতায় সাংবাদিক ক্লাব’র ৪১ নং ভবন ও সামনের চলাচলের পথের জমি অবৈধভাবে রেজুলেশন করে ৩ নেতাকে লিজ দেয়ার প্রস্তাবনা এনেছেন। এ ঘটনায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সম্পাদক ও প্রধান শিক্ষক জাহিদুল ইসলামকে ৭ দিনের মধ্যে জবাব চেয়ে ঝালকাঠি আইনজীবি সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট মোঃ হাসান সিকদারের মাধ্যমে লিগ্যাল নোটিশ করেছেন রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব’র সভাপতি রহিম রেজা।

লিগ্যাল নোটিশে উল্লেখ্য করা হয়েছে, রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪১ নং ভবনের আফসার আলী আকন মিলনায়তন এবং প্রাক্তন ছাত্র মিলন কেন্দ্রটি স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সম্পাদক ও প্রধান শিক্ষক জাহিদুল ইসলামের সাথে গত ১ ডিসেম্বর ২০১৫ সাল থেকে ৩০ নভেম্বর ২০২০ সাল পর্যন্ত মাসিক ১৫শ’ টাকা ভাড়া চুক্তিতে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব প্রতিষ্ঠা করে নিয়মিত ভাড়া পরিশোধ করে বিভিন্ন জাতীয় ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার ২২জন সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

ভবনটির পশ্চিমাংশের ফাঁকা জায়গায় আসা-যাওয়ার পথ এবং ওইখানে সুশীল সামাজ ও সাংবাদিকগণ বিভিন্ন সামাজিক ও জাতীয় কর্মসূচি পালন করে আসছেন। এমতাবস্থায় বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি (পকেট কমিটি) ওই ভবন ও সামনের চলাচলের পথসহ বর্ধিণ জমি স্থানীয় ৩জন ভূমিদস্যূ ও প্রভাবশালীদের যোগসাজসে ব্যক্তিগতভাবে ওই সম্পত্তি আত্মসাতের কুমানসে বেআইনীভাবে যোগাযোগে এন্টিডেটেট তারিখ উল্লেখে গত ১৫ এপ্রিল ২০১৭ তারিখের রেজুলেশনে এক ভাক্ত সিদ্ধান্ত লিপিবদ্ধ করিয়া রাখিয়াছেন। অনুরূপ কার্য্যরে দ্বারা রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব ক্ষতিগ্রস্থ হবে। গত ১৫ এপ্রিল ২০১৭ তারিখের রেজুলেশনে বাতিলসহ অনুরূপ কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য প্রধান শিক্ষককে সম্মানের সাথে নিষেধ করা হয় লিগ্যাল নোটিশে। এতদ্ব সত্বেও গত ১৫ এপ্রিলের বেআইনীভাবে গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

এ বিষয়ে রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, প্রায় দেড় শতাংশ জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত প্রাক্তন ছাত্র মিলন কেন্দ্রের একতলা পুরাতন ভবন সাংবাদিক ক্লাবের কাছে ভাড়া দেয়া হয়েছে। চলাচলের পথসহ সামনের খালি জায়গাটুকু লিজ দেয়ার জন্য ম্যানেজিং কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত কারো সাথে চুক্তি হয়নি। তিনি আরও বলেন যেখানে সোনালী ব্যাংক ছিল সে জায়গাও লিজ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে কিন্তু কারো সাথে চুক্তি হয়নি।

 

ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনের সাংসদ স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বিএইচ হারুন বলেন, কোন ব্যাক্তির কাছে স্কুলের সম্পত্তি লিজ দেয়া ঠিক হবে না। ম্যানেজিং কমিটির সভায় এ ধরনের একটি বিষয় নিয়ে (লিজ) আলোচনা হয়েছে কিন্তু অনুমোদন হয়নি। স্কুলের সম্পত্তি লিজ দেয়ার মত বিতর্কিত কোন কাজ আমি করবো না।