এমপি রিমন’র গাড়িতে আসে ইয়াবা!

0
93

বরগুনা সংবাদদাতা ॥ বরগুনা-২ আসনের ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ শওকত হাচানুর রহমানের ‘সংসদ সদস্য’ লেখা গাড়িতে বরগুনার পাথরঘাটায় ইয়াবার চালান ঢোকে। একই সঙ্গে ওই গাড়িতে সাংসদের সঙ্গে পাথরঘাটার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীরা ঘুরে বেড়ান।

সাধারণ মানুষেরা এসব খবর জানলেও পুলিশসহ অন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। পাথরঘাটা প্রেসক্লাবের আয়োজনে গত শনিবার ইফতার অনুষ্ঠানে পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন এ অভিযোগ করেন। এ সময় তাঁর অভিযোগের সমর্থন দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন।

ওই ইফতার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বি এম আশরাফ উল্যাহ তাহের, পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা মো. খবির আহমদ, পাথরঘাটা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম মজুমদার এবং পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. হুমায়ুন কবির। এ ছাড়া সরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

বরগুনা-২ আসনের সাংসদ শওকত হাচানুর রহমান বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন। এ কারণে তাঁর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে সাংসদের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘এমপির বিরুদ্ধে এসব কথা ধারণামাত্র। ব্যক্তিগত রাগ ক্ষোভ থেকে এসব কথা ছড়ানো হচ্ছে। এমপি মূলত সৎ তা পাথরঘাটার সবাই জানে।’

পাথরঘাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরীর সভাপতিত্বে দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বরগুনা-২ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশী ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের অর্থ সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন, পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হোসেন আকন প্রমুখ।

সাংসদের বিরুদ্ধে করা ওই অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বি এম আশরাফ উল্যাহ তাহের বলেন, ইফতার ধর্মীয় বিষয়। সেখানে যে ঘটনার কথা বলা হয়েছে তা বিব্রতকর, আপত্তিকর। তবে কোনো তথ্যই তাঁরা হালকাভাবে নিচ্ছেন না।