খাচ্ছেন কি? বাজারে প্লাস্টিক চালে সয়লাব

0
54

বাজার থেকে ডিম কিনে নিয়ে গিয়ে হেনস্তা হয়েছিলেন ভারতের কলকাতার এক গৃহবধূ। কেননা ডিম ভাজার সময়ই তা প্লাস্টিকের মতো কুঁকড়ে যাচ্ছিল।
এমনকি প্লাস্টিক পোড়া গন্ধও বেরচ্ছিল। সে ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার ছড়াল প্লাস্টিক চালের আতঙ্ক। হায়দরাবাদ ও উত্তরাখণ্ডের বিভিন্ন অঞ্চলে দেখা মিলল কৃত্রিম চালের। এমনকি বাচ্চারা চালের বল নিয়ে ক্রিকেটও খেলল। কৃত্রিম উপায়ে তৈরি এই চাল বা ডিম বিক্রির অভিযোগ নতুন নয়। এর আগেও ভারতের বিভিন্ন বাজারে কৃত্রিম ডিম ও চাল বিক্রির ঘটনা ঘটেছে। প্রতিবারই অভিযোগের আঙুল ছিল চীনের বিরুদ্ধে। বিভিন্ন মহলের দাবি, চীন থেকেই সুকৌশলে ভারতীয় বাজারে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এই কৃত্রিম জিনিস। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এই ধরনের চাল বা ডিম তৈরির খরচ অনেক বেশি। তা সত্ত্বেও তা কীভাবে বাজারে বিকোচ্ছে? অভিযোগ, আসলে এই ধরনের চাল বা ডিম ঢুকিয়ে ভারতীয় বাজারের স্বাভাবিক ভারসাম্য নষ্ট করারই প্রয়াস চলছে।

সম্প্রতি আবারও সামনে এলো এই ঘটনা। উত্তরাখণ্ডের হলদিওয়ানি বাজারে বিক্রি হচ্ছিল প্লাস্টিক চাল। হাতে নিয়ে দেখা গিয়েছে, তা রীতিমতো জমাট বেঁধে গিয়েছে। চটচটে হওয়ায় গায়ে গায়ে লেগে অনেকটা ক্রিকেট বলের আকার নিয়েছে। এমনকি বাচ্চারা সে চালের বল নিয়ে খেলাও করেছে। অনুরূপ ঘটনা হায়দরাবাদের দুটি অঞ্চলেও ঘটেছে। এক দোকানের বিরিয়ানিতে প্লাস্টিকের চাল ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে প্রথমে। এ ছাড়া একটি বেসরকারি হোস্টেলের আবাসিকরা অভিযোগ করেন যে, রাতের খাবারে যে ভাত দেওয়া হয়েছিল তা প্লাস্টিক চালেই তৈরি। ফলত তার স্বাদও আলাদা। আবাসিক পড়ুয়ারা হোস্টেল মালিকের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করেছে পুলিশে। অন্য এলাকার এক বাসিন্দা চাল কিনে আনার পর দেখেন, তা সাধারণ চালের মতো নয়। রীতিমতো প্লাস্টিকের মতো বস্তু।

বাসিন্দাদের মিলিত অভিযোগ, কয়েকজন ব্যবসায়ী জেনেবুঝেই এ ধরনের চাল বিক্রি করছেন। তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। তবে সাধারণ মানুষকে অযথা ভয় না পেয়ে শান্তও থাকারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি প্রশ্ন উঠছে, কী করে চেনা যাবে কোনটা প্লাস্টিক চাল? বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, তা চেনার উপায়ও খুব সহজ। চাল জলে ভিজিয়ে রাখলে যদি তা পানিভরা পাত্রের নিচে চলে যায়, তবেই তা আসল চাল। প্লাস্টিক চাল হলে সে ক্ষেত্রে পানির ওপর তা ভেসেই থাকবে। এ ছাড়া ভাত যদি কয়েকদিন রাখার পর তাতে ছত্রাকের সংক্রমণ ঘটে বা পচে যায় তবে জানতে হবে তা আসল চালের ভাত। প্লাস্টিক চালের ক্ষেত্রে তা হয় না বলেই মত বিশেষজ্ঞদের। -কালের কণ্ঠ