খালেদার সঙ্গে কারাগারে পাঁচ আইনজীবী

0
30

সময়ের বার্তা ।।

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন তার পাঁচ আইনজীবী। তারা এই মামলায় আপিলের ব্যাপারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বলেছেন।

শনিবার বিকাল চারটা ২৫ মিনিটে সিনিয়র পাঁচ আইনজীবী কারাগারে প্রবেশ করেন। ৫টা ৪৫ মিনিটে তারা কারাগার থেকে বের হন।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎকারী আইনজীবী হলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলী, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার প্রধান আইনজীবী আবদুর রেজ্জাক খান।

কারাগার থেকে বের হয়ে সাংবাদিকরেদ মওদুদ আহমদ বলেন, ‘নির্জন কারাবাস বলতে যা বোঝায়, ম্যাডামকে তা দেয়া হয়েছে। জনমানবহীন পরিবেশে রাখা হয়েছে। ডিভিশন দেয়া হয়নি। সাধারণ কয়েদিদের যা খেতে দেয়া হয়, খালেদাকেও তাই দেয়া হয়েছে, যা প্রায় অখাদ্য।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, ‘যে পরিচারিকাকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে রাখার কথা বলা হয়েছে, যাকে ছাড়া ম্যাডাম ১৫-২০ বছর চলতে পারেননি, সেই ফাতেমাকেও এখনো থাকার অনুমতি দেয়া হয়নি। এটা সরকারেরই দেখা দরকার।’ এ বিষয়ে প্রয়োজনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও দেখা করবেন বলে জানান ব্যারিস্টার মওদুদ।

এর আগে বিকাল পৌনে তিনটার দিকে পুরান ঢাকায় সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারের ফটকে গিয়ে সামনের চেকপোস্টে থাকা পুলিশ সদস্যদের কাছে আবেদনপত্রটি দেন আইনজীবীরা। পরে তা কারা কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয় বলে জানান সেখানে দায়িত্বরত লালবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার হেলাল উদ্দিন।

পরিদর্শক আরও বলেন, কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি দেয়ার পর আইনজীবীদের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। রায় ঘোষণার পরপরই সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। এই মামলায় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা উচ্চ আদালতে আপিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। উচ্চ আদালতে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী খালাস পাবেন বলে আশা করছেন তারা।