টেস্ট খেলতে চাচ্ছেন না সাকিব!

0
18

সময়ের বার্তা ডেস্ক।।

ক্রিস গেইলের মতো অদ্ভুত পথে হাঁটতে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসান! যে কোনো ক্রিকেটারদের জন্য সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত ফরম্যাট হলো টেস্ট। কিন্তু টেস্ট নিয়ে নাকি সাকিবের মধ্যে অপাতত অনীহার সৃষ্টি হয়েছে! ৬ মাস এ ফরম্যাট থেকে দূরে থাকতে চান তিনি। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির অন্যতম পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

কিন্তু কেন? নিজের উপর বাড়তি চাপ কমাতে এই ফরম্যাট থেকে কিছু দিনের জন্য দূরে থাকতে চাইছেন সাকিব। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য সোমবার বিকালে আনুষ্ঠানিকভাবে দল ঘোষণা করবে বিসিবি। ওই দলে সাকিব থাকবেন কি থাকবেন না, এটাই এখন দেখার।

যদিও অকরাম খান জানিয়েছেন, এখনও সাকিবের কাছ থেকে এ ধরনের কোনা চিঠি পায়নি বিসিবি।  আকরাম খান বলেন,‘ সাকিব আপাতত টেস্ট খেলতে চাচ্ছে না এটা আমরা শুনেছি। কিন্তু এ বিষয়ে এখনও তার কাছ থেকে আমরা কোনো চিঠি পাইনি। পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

যতদূর জানা গেছে, রবিবার বিকালে বিসিবির কাছে আগামী ৬ মাস টেস্টের বাইরে থাকার অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছেন সাকিব! কিন্তু তার এ আবেদন বিসিবি কীভাবে নেয় সেটাই দেখার। তবে যতটা জানা গেছে, টেস্ট থেকে ছুটির ব্যাপারে সাকিব খুবই সিরিয়াস। অন্যদিকে বিসিবি চাচ্ছে সাকিব যেন সিদ্ধান্ত পাল্টান।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বোর্ড প্রেসিডেন্টকে সাকিব তার ইচ্ছাটার কথা জানান। শনিবার নাজমুল হাসান পাপনের বাসায় সাকিবের বিষয়টা নিয়ে আলোচনা হয়েছে নির্বাচক, কোচ ও অধিনায়কের সঙ্গে। সাকিবের এ সিদ্ধান্ত দল গড়তে ঝামালায় ফেলে দিয়েছে নির্বাচকদের। সাকিবকে এমন সিদ্ধান্ত না নেওয়া জন্য তাদের পক্ষ থেকে বোঝানাও হচ্ছে।

অবশ্য প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু আশা করছেন, সিদ্ধান্ত পাল্টে ঠিকই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাবেন সাকিব। তিনি বলেন,‘ আমি মনে করি সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দলে থাকবেন। তার কাছ থেকে এখনও কোনো চিঠি আমরা পাইনি। পেলে  বিকল্প চিন্তা করব। আপাতত তাকে নিয়েই আমরা ভাবছি।’

শনিবার ১৫ সদস্যের টেস্ট দল ঘোষণা করবে বিসিবি। ১৬ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা রওনা করবে বাংলাদেশ টেস্ট দল। সেখানে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে টাইগাররা। তিনটি ওয়ানডে ও দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজও রয়েছে সফরে।