তিনি একজন চিয়ারলিডার, অথচ…

0
64

সময়ের বার্তা ডেস্ক।।

তিনি একজন চিয়ারলিডার। খেলাধুলার বড় উৎসবে বাড়তি আন্দ দেন তিনি দর্শকদের। নাম ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসন। কিন্তু গুরুত্বর এক অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি তিনি।

বলা হচ্ছে, নিজের মেয়েকে তিনি হত্যা করেছেন। এরপর মৃতদেহ পুড়িয়ে ফেলেন। পোড়ানোর পরে দেহভষ্ম বাড়ির পিছনে নিয়ে পুঁতে রেখেছেন। এ অভিযোগে তার বিরুদ্ধে বিচার চলছে। এতদিন এ অভিযোগে তাকে রাখা হয়েছিল জেলে। তবে ৫০ হাজার ডলারের বিনিময়ে জামিনে জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

এরপর তাকে রাখা হয়েছে গৃহবন্দি করে। ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও’র। আগামী ৬ই নভেম্বর আবার আদালতে এ নিয়ে শুনানি হবে। ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসন ১৮ বছর বয়সী যুবতী। তিনি সম্প্রতি স্কুলের গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেছেন। মে মাসে তিনি নবজাতক কন্যাকে হত্যা করেছেন এমন অভিযোগ আনা হয়েছে। তার বাড়ির পিছন থেকে মাটি খুঁড়ে পুলিশ ওই কন্যা সন্তানের দেহভষ্ম উদ্ধার করেছে। এ অভিযোগে মঙ্গলবার ওয়ারেন কাউন্টি কোর্টে হাজির করা হয় ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসনকে। এটা ছিল বিচার আনুষ্ঠানিকভাবে শুরুর পূর্ব প্রস্তুতি।

সেখানে বিচারক দ্বিতীয় ডনাল্ড ওডা ঘোষণা করেছেন, ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসনের বিচার আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে ৬ই নভেম্বর। গত সপ্তাহে ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসন তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। কিন্তু পুলিশ তার কন্যার দেহভষ্ম উদ্ধার করার পর আদালত বিষয়টিকে হালকাভাবে দেখছে না। তাই ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসন তার পায়ের গোড়ালিতে পর্যবেক্ষণকারী ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস পরতে রাজি হওয়ার পর বিচারক ৫০ হাজার ডলারের বিনিময়ে তাকে জামিন দিয়েছেন। তাকে এভাবে জামিন দেয়ায় তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে সমালোচনা করছেন বিচারকের। বলছেন, ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসনের প্রতি বেশি নমনীয়তা দেখিয়েছেন বিচারক। এ নিয়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভ হচ্ছে।

চেরি ইয়ং নামে এক প্রতিবাদকারী বলেছেন, আদালত শাস্তি ঘোষণা না করা পর্যন্ত জেলে থাকা উচিত ব্রুক স্কাইলার রিচার্ডসনের। মঙ্গলবার স্কাইলার যখন সাদা ও কালো পোশাক পরে আদালতে হাজির হন তখন তার মুখ যেন পাথরের আকার ধারণ করেছিল। তার সঙ্গে ছিলেন পিতামাতা। এ সময় তার বিরুদ্ধে স্লোগান দেয় বেশ কিছু বিক্ষোভকারী। তারা স্লোগান দেয়- ‘গর্ভপাত বৈধ, কিন্তু হত্যা বৈধ নয়’। আনুষ্ঠানিকভাবে ৬ই নভেম্বর মামলার শুনানি হলেও বৃহস্পতিবার আরেকদফা স্কাইলারকে আদালতে যেতে হবে। এ ছাড়া আনুষ্ঠানিক শুনানির আগে আরো তিন দফা শুনানি হবে ২৫ শে আগস্ট, ২৭ সেপ্টেম্বর ও ৩রা অক্টোবর। ওদিকে অভিযোগে বলা হয়েছে, ওহাইও’র কারলিসলেতে ব্রুক স্কাইলারের বাড়ি। ১৪ই জুলাই সেই বাড়ির পিছন থেকে তার সন্তানের পোড়া দেহভষ্ম উদ্ধার করে পুলিশ। এ বিষয়ে জানতেন এমন একজন গাইনি ডাক্তার তথ্য দিয়েছিলেন পুলিশকে।

তিনি বলেছিলেন, তার বিশ্বাস ওই শিশু সন্তানটি জীবিত অবস্থায় জন্মেছিল। শিশুটির দেহভষ্ম পরীক্ষা করে বিশেষজ্ঞরাও এই মত দিয়েছেন। তবে গত সপ্তাহে ব্রুক স্কাইলারের আইনজীবী কারলি রিটজারস আদালতে বলেছেন, তার মক্কেল তার নবজাতককে হত্যা করেন নি।