দেশে আগুন জ্বলবে: রিজভী

0
125

সময়ের বার্তা ।।

দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা হলে দেশে আগুন জ্বালানোর হুঁশিয়ারি এসেছে বিএনপির পক্ষ থেকে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় রায়ের তারিখ ঘোষণার তারিখ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই হুঁশিয়ারি দেন।

২০০৮ সালের জুলাইয়ে মামলা করার সাড়ে নয় বছর পর বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচার আখতারুজ্জামান আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি রায়ের তারিখ ঘোষণা করেন।

কিছুক্ষণ পর জাতীয় প্রেসক্লাবের এক আলোচনায় রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কোন অশুভ ধারা পড়লে, সারা দেশে আগুন জ্বলবে।’

খালেদা জিয়ার এই মামলা নিয়ে বিএনপি ভীষণ উদ্বিগ্ন। কারণ দুই বছরের সাজা হলে বিএনপি নেত্রী নির্বাচনের জন্য অযোগ্য হয়ে যাবেন।

সকালে দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, এই মামলার রায় সরকার আগেই লিখে রেখেছে। আর বিচারের নামে চলছে প্রসহন।

ফখরুল বলেন, ‘এই অবৈধ সরকার পূর্বেই রায় লিখে রেখেছেন। তবে এই বিচারের প্রহসনের কোনও প্রয়োজন ছিল না। দেশে যে আইনের শাসন নেই-ন্যায়বিচার সুদুর পরাহত সেটাই প্রমাণিত হলো। বিচার হবে প্রধানমন্ত্রী যা চাইবেন তাই।’

বিকালের সমাবেশে রিজভী বলেন, ‘৭৫ সালে যেভাবে গণতন্ত্রকে কবর দিয়ে বাকশাল কায়েম করা হয়েছিল, ঠিক সেইভাবে একই কায়দায় তার কন্যা দেশ পরিচালনা করছে।’

‘বর্তমানে সারা দেশে খুন গুম মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি চলছে। প্রতিদিনিই দেশে চলছে বাকশালী কায়দায়, পুলিশ বাণিজ্য করছে।’

বুধবার জাতীয় সংসদে নাগরিক সমাজের সদস্যদের আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যেরও সমালোচনা করেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যেভাবে সুশীল সমাজকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করছে, বেগম জিয়া তা কখনও এভাবে মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করে নাই।’

বিএনপি নেতা রিজভী আহমেদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের কাছে শিক্ষার কোনো দাম নাই। শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে ফেলছেন। বর্তমানে গাধারা দেশ শাসন করছে, এখন পুরো দেশটাকে গাধা বানানোর চেষ্টা করছে আওয়ামী লীগ সরকার।

আয়োজক সংগঠন বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরামের সহ-সভাপতি মাহমুদুল হাসান শামীমের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি সাইদুর রহমান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মো. রহমাতুল্লাহ, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।