ধেয়ে আসছে তিন মাইল চওড়া গ্রহাণু

0
33

সময়ের বার্তা ডেস্ক।।

গ্রহাণু মূলত পাথর দ্বারা গঠিত একপ্রকার বস্তু যা তার তারাকে কেন্দ্র করে আবর্তন করে। গ্রহাণুগুলো আকারে সবচেয়ে ছোট গ্রহ বুধের তুলনায়ও অনেক ছোট হয়। সৌরজগতে চুরুট আকারের অদ্ভূত এক গ্রহাণুর ভেসে বেড়ানো নিয়ে জ্যেতির্বিজ্ঞানীদের জল্পনা-কল্পনার মধ্যে আরো রহস্যময় এক ধরনের গ্রহাণুর কথা জানা গেছে। তিন মাইল বিস্তৃত এই গ্রহাণুপুঞ্জ আকারে সৌরজগতে ভেসে বেড়াচ্ছে। রাশিয়ার জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা সর্বপ্রথম রহস্যময় এই গ্রহাণু পুঞ্জের কথা সামনে নিয়ে এসেছেন।
জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা এই গ্রহাণুপুঞ্জের নাম দিয়েছেন পায়েথন ৩২০০। গ্রিক ধ্বংসকারী দেবী পায়েথনের নামে নামকরণ করা হয়েছে। এই পায়েথন গ্রহাণুপুঞ্জের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীর আকাশ আলোকিত করছে। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা প্রকাশ  করেছেন, আগামী বড়দিনের আগেই এটি এই গ্রহকে একটা ঝাকুনি দিতে যাচ্ছে।
নাসার বিজ্ঞানীদের মতে, এই গ্রহাণুটি বিপজ্জনক হলেও তা নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে নিষেধ করেছেন তারা। আগামী ১৭ ডিসেম্বর পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে ৬.৪ মিলিয়ন মাইল দূর থেকে এটি পৃথিবীকে অতিক্রম করবে। পৃথিবীকে আঘাত করার কোন আশঙ্কা এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা দেখছেন না।ইমানুয়েল কান্ট বাল্টিক ফেডারেল ইউনিভার্সিটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তিন মাইল বিস্তৃত এই গ্রহাণুটি সম্ভবত একসময় বেশ বড় একটি বস্তু ছিল। কিন্তু বহু বছর ধরে সূর্যের কাছাকাছি অবস্থানের কারণে তা ছোট ছোট খণ্ডে পরিণত হয়ে পুঞ্জাকারে ভেসে বেড়াচ্ছে। যা কিনা বর্তমানে উল্কা বৃষ্টির আকার ধারণ করেছে।এপি।