নওগাঁয় সড়কদুর্ঘটনায় মোটর সাইকেল চালক ও পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

0
84

মোঃ খালেদ বিন ফিরোজ, নওগাঁ প্রতিনিধি।।

নওগাঁর সাপাহারে সড়ক দুর্ঘটানায় এক মোটর সাইকেল চালক ও পানিতে ডুবে এক শিশুর মার্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। মৃত মোটর সাইকেল চালক উপজেলার রাইপুর গ্রামের আলাউদ্দীন এর পুত্র ও পানিতে ডুবে মৃত শিশু পাশ্ববর্তী পতœীতলা উপজেলার গোবিন্দবাটি গ্রামের ময়নুল হক এর পুত্র বলে জানা গেছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় রোববার দিবাগত রাত্রি সাড়ে ১২টার দিকে সাপাহার বাজার হতে ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক মাসুদ রানা (২৮) মামুনুর রশিদ নামের এক যাত্রীকে তার মোটর সাইকেলে নিয়ে বাসায় পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। রাস্তায় তারা নিশ্চিন্তপুর মোড়ের নিটক পৌঁছিলে মোড়ের বাঁক ঘোরার সময় অসাবধানতা বশতঃ মোটার সাইকেল চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলে এবং মোটর সাইকেলটি রাস্তার পার্শ্বে একটি গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে ঘটনাস্থলেই চালক মাসুদ রানা মৃত্যু বরণ করেন। এসময় উপজেলার বিন্ন্যাকুড়ী মাছিয়া ডাঙ্গা গ্রামের খায়রুল হকের পুত্র যাত্রী মামুনুর রশিদ ছিটকে পড়ে তার একটি হাত ভেঙ্গে যায়। রাতেই আহত মামুনুর রশিদকে সাপাহার হাসপাতালে নিয়ে এলে প্রার্থমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। সংবাদ পেয়ে মৃত মাসুদ রানার লোকজন রাতেই তার লাশ ঘটনাস্থল হতে নিয়ে গিয়ে দাফন কার্য সমাপ্ত করেন।

অপর দিকে সোমবার সকাল আনুমানিক ১০ টার দিকে সাপাহার উপজেলা সদর সংলগ্ন পতœীতলা উপজেলার গোবিন্দবাটি গ্রামের ময়নুল হকের দেড় বছর বয়সের পুত্র রবিউল ইসলাম (১৮মাস) বাড়ীর সকলের অজান্তে পুকুরের পাশে খেলতে গিয়ে পা পিছলে পানিতে পড়ে যায়। এর পর শিশুকে বাড়ীতে না পেয়ে খোজাখুজির এক পর্যায়ে পুকুরের পানিতে শিশুর ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে তড়ি ঘড়ি করে তাকে সাপাহার হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। ফুট ফুটে অবুঝ শিশুর মৃত্যুর সংবাদ জানা জানি হলে হাসপাতালে অবস্থান রত শিশু রবিউলের পিতা মাতার গগন বিদারী আর্তনাতে এলাকার আকাশ বাতাস ভারি হয়ে ওঠে ও পুরো হাসপাতাল এলাকায় এক শোকের ছায়া নেমে আসে।