নাভানার বিরুদ্ধে সরকারী টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

0
83

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নাভানা কনেকট্রাকশন’র ম্যানেজার মাহাবুবের খামখেয়ালীপানায় বিপাকে পাইলিং ঠিকাদার। মাহাবুবের কারণে ঠিকাদার লিটনের লোকসান দিতে হচ্ছে প্রায় ১০ লাখ টাকা। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নামমাত্র বেরী বাঁধে পিলার পুঁতে যাবার কারণে ১২ জুন হঠাৎ ওই বেরী ভেঙ্গে যায়। বেরী বাঁধের এ পাশে থাকা চলমান নির্মাণাধীণ কার্যক্রমের যন্ত্রপাতি পানিতে তলিয়ে যায়।

যা এখন শ্রমিক দিয়ে উঠানো হচ্ছে। তাছাড়া সঠিক সময় কাজ বুঝিয়ে দিতে না পারায় হুমকির মুখে পরছেন ঠিকাদার লিটন। বরিশাল সদর উপজেলা মেহেন্দিগঞ্জের ১নং আন্দারমানিক ইউনিয়ন ৭ নং মধ্যভংগা গ্রামে জিপিএস (রাস্তার সিরিয়াল নং বিপি ৫১৫) এর রাস্তাটি প্রায় ৫ কিলোমিটার একটি রাস্তার উন্নয়নমূলক কাজ এমডিএসপি প্রজেক্টের রাস্তার কাজটি এলজিডি’র মাধ্যমে পায় নাভানা কনেকট্রাকশন নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এরমধ্যে রাস্তার পাশে পাইলিংয়ের জন্য বরাদ্ধ রাখা হয় প্রায় ৪ কোটি ৪ লাখ টাকা।

পাইলিংয়ের ৯৬টি পিলার পুঁতে দেয়ার জন্য বরিশালের এক ঠিকাদারকে দায়িত্ব প্রদান করে নাভানা প্রতিষ্ঠানটি। পাইলিং পিলার পুঁতে দেয়ার দায়িত্ব থাকা ওই প্রতিষ্ঠানের প্রোপাইটার লিটন নাভানা থেকে ওয়ার্ক পার্মিট নিয়ে চলতি বছরের ১১ মার্চ কাজ শুরু করে।

সর্বশেষ গত মঙ্গলবার সর্বমোট ৫১ টি পিলার পুঁতে রাখার কাজ সম্পন্ন হয়। কিন্ত মঙ্গলবার বিকালে ৪টার সময় হঠাৎ ওই পাইলিং এলাকাতে বেরি বাঁধ ভেঙ্গে এলোমেলো হয়ে যায় ।

এরফলে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১০ লাখ টাকা লোকসান দিতে হচ্ছে বলে দাবী কর্মে নিয়োজিত শ্রমিকসহ অধিকাংশ স্থানীয় বাসিন্দার।

তাদের দাবী এরজন্য দায়ী নাভানা কোম্পানীর পক্ষে নিয়োজিত থাকা ডি.পি.এম. মাহাবুব। কারণ হিসেবে তারা মনে করছেন, রাস্তার পাশে পাইলিং কাজ শুরু করার পুর্বে রাস্তার পাশে থাকা খালের দু’পাশের বেরী বাঁধ ও পিলার পুঁতে রাখা উদ্যোগ নেয়া হলেও ভরাট করা এবং শ্রমিকদের সুরক্ষার ব্যবস্থা করা সরকারী বিধি-বিধান অর্থাৎ চুক্তি ভঙ্গের দন্ডবিধি ৪০৬,৪২০ ও ১০৯ নাভানার পক্ষ থেকে এর কোনটাই সু পরিকল্পিতভাবে সম্পন্ন করেনি।

নামমাত্র বেরী বাঁধ দিয়ে কাজ চালিয়ে সরকারী টাকা আত্মসাত করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে নাভানা নামের এ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি। কাজ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা নাভানা কনেকন্টেশন কোম্পানির ডি.পি.এম. মাহাবুবের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে রিং দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেনি।