পেঁয়াজ ও চালের দাম কমেছে বেড়েছে সবজি ও মাছের দাম

0
62
হাফিজুল ইসলাম লস্কর, সিলেট।।
ঈদ’র দশ/বার দিন আগে হঠাৎ করে সিলেট’র বাজারে অতর্কিত ভাবে বেড়ে যায় পেঁয়াজের দাম। ফলে ক্রেতাদের মনে আতঙ্ক বাসা বাধে যে হয়তো ঈদ যত ঘনিয়ে আসবে পেঁয়াজের দাম আরো বাড়বে। ফলে ক্রেতারা ৪৫/৫০ টাকা দামে পেঁয়াজ ক্রয় করে।
কিন্তু অবশেষে ঈদের দুইদিন আগে পেঁয়াজ’র দাম কমতে শুরু করে সেই সাথে কমে চালেরও দাম, ফলে ক্রেতাদের মাঝে কিছুটা হলেও স্বস্তি আসে। তবে পেঁয়াজ ও চালের কমলেও  বেড়ে যাচ্ছে সবজি ও মাছের দাম।
সিলেট নগরীর বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, সুবিদবাজার, মদিনা মার্কেট, আখালিয়া বাজারে ঘুরে নিত্যপণ্যের দরদামের এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
পেঁয়াজ ও চালের দাম কিছুটা কমায় স্বস্তি বিরাজ করছে বাজারে। কোরবানি সামনে রেখে এ সময়টিতে সবচেয়ে বেশি চাহিদা তৈরি হয় পেঁয়াজের। দুই সপ্তাহ আগে হঠাৎ করে দ্বিগুন দামে ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয় প্রতি কেজি পেঁয়াজ।
সেই পেঁয়াজ জাত ও মান ভেদে এখন ২৮ টাকা থেকে ৩২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সরবরাহ বাড়ায় পেঁয়াজের দাম আরও কমতে পারে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
একই অবস্থায় মোটা চালের ক্ষেত্রে আমদানি বেড়ে যাওয়ায় কেজিতে ১-২ টাকা কমছে মোটা চালের দাম। কিন্তু চিকন ও উন্নতমানের চালের দাম কমছে না।
বর্তমানে প্রতি কেজি মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৮-৪০ টাকায়। এছাড়া সরু ও চিকন চাল কিনতে ভোক্তকে ৫০-৫২ টাকা ব্যায় করতে হচ্ছে।
এদিকে কোরবানি সামনে রেখে বাজরে সব ধরনের মাংসের চাহিদা কমে গেছে। বন্দর বাজারের মুরগী বিক্রেতা বলেন, কোরবাানি সামনে এ কারনে মুরগির বিক্রি কমছে।
খোঁজ নিয়ে দেখা যায় প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১২৫ টাকা এবং দেশী মুরগি জাতভেদে ৪৩০-৪৪০ টাকা।
সবজি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে আলু ২০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, কাঁকরোল ৫০ টাকা, গোলবেগুন ৪৫ টাকা, ঢেঁড়শ ৪০ টাকা, শশা ৩৫-৪০ টাকা, মরিচ ১৫০ টাকা ,মূলা ৪৫ টাকা দরে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে। সবজি আড়তের সবজি বিক্রেতা রশিদ বলেন, সবজি বাজারে ক্রেতাদের চাপ বেশি।
এদিকে আগের দামেই স্থিতিশীল রয়েছে অধিকাংশ মুদি পণ্যের দাম। বাজারে প্রতি কেজি ছোলা ৮০ টকা, দেশি মুগ ডাল ১২০ টাকা, মাসকলাই ১১৫ টাকা, দেশি মসুরের ডাল ৬৫ টাকা।
বাজারে ব্র্যান্ড ভেদে ৫ লিটারের তেলের বোতল ৫০০ টাকা, প্রতি লিটার ১০২-১০৯ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
মাছের বাজারে ঘুরে দেখা গেছে আকার ভেদে মাছের দাম বেড়েছে। প্রতি কেজি রুই মাছ ১২০ টাকা ,সরপুঁটি ১১০-১২০ টাকা, কাতলা ২০০ টাকা, সিলভার কার্প ৭০-৮০ টাকা, চাষের কই ১৫০ টাকা, পাঙ্গাস ১০০ টাকা, টেংরা ৩০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।