বরিশালে প্রতিদিন একটি করে খুন

0
176

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পরকীয়া, সম্পত্তির বিরোধ, ছিনতাই, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বরিশাল বিভাগে চলছে অস্থিরতা। প্রতিদিনই কেউ কারও দ্বারা খুন হচ্ছেন নতুবা নিজের মন:পুত না হওয়ায় নিজেকে হত্যা করছেন নিজেই।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে ২০১৮ সালের অন্যান্য মাসের তুলনায় এপ্রিল মাসে হত্যাকান্ডের ঘটনা উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে বরিশালে। যা যথারীতি সংঘাত বা খুনের জনপদে পরিণত হয়েছে। হিসেব অনুযায়ী বরিশাল বিভাগে প্রতিদিন গড়ে একটি করে খুনের ঘটনা ঘটছে।

এরমধ্যে শ্রেণী শত্র“ খতম ও সমাজ বর্হিভূত সম্পর্কের খেসারত বেশি। আবার খুনীরা এতটা ধুর্ত ও কৌশলী হয়ে থাকে যে খুনের চিহ্ন স্পষ্ট থাকলেও খুনীদের সনাক্ত করতে পারে না শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এর পিছনে সামাজিক অবক্ষয় কাজ করছে বলে মনে করেন বিএম কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ও সমকালিন বাংলাদেশ প্রেক্ষাপটের গবেষক এ.এস কাইউম উদ্দীন আহম্মেদ। তিনি মনে করেন, আগে আমাদের ছেলেবেলায় একজন মানুষ গড়ে তুলতে যে শিক্ষা দেওয়া হত তা এখন নেই। এখন শিশুদের সামাজিকিরকরণের আগেই তাদের হাতে প্রযুক্তি তুলে দেওয়া হচ্ছে।

শুধু প্রযুক্তি তুলে দিয়েই দায়িত্ব শেষ করছেন অভিভাবকরা। প্রযুক্তির ব্যবহার কেউ শিখিয়ে দিচ্ছেন না। এর ফলে একটি খারাপ প্রভাব পরছে সামগ্রিক সমাজে। তিনি মনে করেন, সবাই যদি সহনশীল ও পারিবারিক বন্ধনে আবদ্ধ থাকে তাহলে এ ধরনের নৃশংস ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব। ৬ এপ্রিল থেকে গতকাল ২৪ এপ্রিলের সংবাদ পর্যালোচনায় দেখা গেছে এই ১৮ দিনে ১৮টি খুনের ঘটনা ঘটেছে বরিশালে। এরমধ্যে, ৬ এপ্রিল পটুয়াখালীর পতিতা পল্লী থেকে মুন্নি আক্তার (৩০) নামে এক যুবতীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মুন্নির বাড়ি লালমনিরহাটের বড়গ্রামে। তিনি পটুয়াখালীর পতিতা পল্লীতে দীর্ঘ ৮ বছর যাবত ছিলেন। তার বাড়িতে থেকে মা ও বোন মরদেহ নিতে এসেছে। তাদের কাছে মুন্নির লাশ হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু মুন্নির খুনি কে তা এখনো সনাক্ত হয়নি।

 

ওই একই দিন (এপ্রিল ৬) ঝালকাঠি জেলার রাজাপুরের বিষখালী নদী থেকে অজ্ঞাত (২৭) এক যুবকের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। উপজেলার চল্লিশকাহনিয়া এলাকা থেকে অজ্ঞাত লাশটি উদ্ধার করা হয়। লাশের হাত পেছনে বাঁধা অবস্থায় একটি চটের বস্তার ভেতরে ছিল। এই লাশটির পরিচয় এখনো সনাক্ত হয়নি। ১১ এপ্রিল বরগুনার আমতলী উপজেলার চাউলা গ্রামে মো. ইউসুফ (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। নিহত ইউসুফ আঠারোগাছিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ওইদিন রাত ১০ টার দিকে স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে ইউসুফকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। ১৮ এপ্রিল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় নিখোঁজের তিন দিন পর মো. আরিফ নামে এক ট্রাক চালকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। উপজেলার বড় শৌলা গ্রামের একটি খাল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মঠবাড়িয়া থানার পরিদর্শক মাজহারুল আমীন বলেন, সন্দেহ করা হচ্ছে কয়েকদিন আগে ওই যুবককে হত্যা করে লাশ খালে ফেলে রাখা হয়েছে।

 

এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ২০ এপ্রিল পারিবারিক কলোহের জের ধরে বরিশালের বাবুগঞ্জ আব্দুল হাকিম বাদশা বেপারীকে (৬৫) শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার স্ত্রীর মর্জিনা বেগমকে (৫০)। উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের জাহাপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। ১২ বছর আগে আব্দুল হাকিম বাদশা বেপারীর বাসায় তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম ওই এলাকার এক বিধবা মহিলাকে আশ্রয় দেন। সেই থেকেই তাদের মধ্যে কলোহের সৃষ্টি হয়। সর্বশেষ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে স্থানীয় সালিসদারদের মাধ্যমে ওই বিধবা মহিলাকে ৪০ হাজার টাকা দিয়ে আব্দুল হাকিম তার বাসা থেকে ওই মহিলাকে বিদায় দিয়ে দেয়। এই ঘটনায় আব্দুল হাকিমের স্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে সেও বাসা থেকে বাবার বাড়ি চলে যান। বৃহস্পতিবার ওই বিধবা মহিলা সমেৎ মর্জিনা বেগম পুনরায় স্বামী আব্দুল হাকিমের বাড়িতে এসে হাজির হন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে আব্দুল হাকিমের বাসার সামনের রাস্তা থেকে হাকিমের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। আব্দুল হাকিমের মামা হারুন অর রশীদ জানান, তার ভাগ্নে আব্দুল হাকিমকে তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম ও ওই বিধবা মহিলা শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে।

২১ এপ্রিল আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পটুয়াখালীর বাউফলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে এক ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন। উপজেলার নওমালা ইউনিয়নের নগরের হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইউপি সদস্যের নাম মো. রফিক হাওলাদার (৪৫)। তিনি নওমালা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য। ১১ এপ্রিল বরগুনার আমতলীতে মো. ইউসুফ নামের এক তরুণকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। সাড়ে ৯টার দিকে আমতলী আঠারোগাছিয়া ইউনিয়নের চাউলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, জমির বিরোধ নিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। ১০ এপ্রিল বরগুনা সদর উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের উত্তর কলাগাছিয়া গ্রামে আমেনা (২৩) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে করে হত্যা করেছে স্বামী মেহেদী হাসান আকন (২৫)। পুলিশ বলছে যৌতুকের জন্য মেহেদী হাসান এবং তার পরিবারের লোকজন আমেনাকে শ্বাসরোধে এবং পিটিয়ে হত্যা করে লাশ বাড়ির ২শ গজ দুরে ডাল ক্ষেতে ফেলে রাখে। ১৮ এপ্রিল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় আরিফ হোসেন হাওলাদার (১৮) নামে এক যুবককে হত্যার পরে লাশ খালে ভাসিয়ে দেয় হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের চার দিন পর উপজেলার পশ্চিম বড়শৌলা গ্রামের তেঁতুলবাড়িয়া খালের বাঁধের পাড় থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। লাশের পায়ে রশি বাঁধাসহ মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

পূর্বশত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসীরা ওই যুবককে হত্যার পর লাশ খালের বাঁধের পাড়ে ফেলে দেয়। নিহত আরিফ ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন। তিনি উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের পশ্চিম বড়শৌলা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আনোয়ার হোসেন হাওলাদারের বড় ছেলে। ১৫ এপ্রিল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক সদস্য আব্দুল লতিফ ঘরামীকে (৫০) তার ভাতিজা আলামিন কুপিয়ে হত্যা করে। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ওই ইউনিয়নের তুলাতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুল লতিফের বাড়ি উপজেলার বকসীর ঘটিচোরা গ্রামে। একই দিন (১৫ এপ্রিল) বরিশাল শহরের কাউনিয়া থানাধীন এলাকার একটি ডোবা থেকে তৃতীয় শ্রেণির এক স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত বেলাল শেখ (১০) শহরের গগন গলি এলাকার আব্দুর রব শেখের ছেলে ও স্থানীয় মৎস শ্রমিক প্রাথমিক বিদ্যালয়েরর তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। ১৪ এপ্রিল বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠী ইউনিয়নের পাণ্ডব নদীর তীর থেকে মরিয়ম বেগম (৪২) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মরিয়ম বেগম কলসকাঠী ইউনিয়নের রফিক মীরের স্ত্রী। দুই দিন আগে থেকে নিখোঁজ ছিলেন মরিয়ম। ২৩ এপ্রিল ঝালকাঠির রাজাপুরে শুক্কুর আলী হাওলাদার (২১) নামে এক আলিম পরীক্ষার্থী মোটরসাইকেল চালককে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। ২৩ এপ্রিল রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ভাতকাঠি গ্রামের ভাতাকাঠি-উত্তমপুর ইটের রাস্তার মোল্লাবাড়ি কালর্ভাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের মাথায় ও শরীরে ধাড়ালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ২১ এপ্রিল রাতে রাজাপুর উপজেলা সদরের দক্ষিণ বাজারের কামারপট্টি এলাকায় খলিলুর রহমান মোল্লা নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে হত্যা করা হয়। সর্বশেষ গতকাল ২৪ এপ্রিল পটুয়াখালী সদর উপজেলায় ৯ বছরের এক শিক্ষার্থীকে হত্যা করা হয়। উপজেলার জৈনকাঠী ইউনিয়নের পূর্ব জৈনকাঠী এলাকায় নিজ বাড়িতে এঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মারুফা। মারুফা ওই এলাকার মোকলেছ তালুকদারের মেয়ে। সে স্থানীয় জৈনকাঠী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চুতর্থ শ্রেণির ছাত্রী। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মারুফাকে ঘরে একা রেখে তার মা মাকসুদা বেগম পারিবারিক কাজে ক্ষেতে যান।

ফিরে এসে খাটের নিচে হাত-পা বাঁধা ও কাপর দিয়ে মুখ পেঁচানো অবস্থায় মেয়ের লাশ দেখতে পান। পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আবুল বাশার বলেন, এটি একটি হত্যাকাণ্ড। এছাড়াও এই ১৮ দিনে বরিশালে কমপক্ষে ৬টি আত্মহননের ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যেক হত্যাকান্ডে বা আত্মহত্যায় দেখা যায় নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করতে অপরের ওপর নৃশংস হয়েছেন ব্যক্তিরা। এ বিষয়ে অপরাধ নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করা ও জনসেবায় উইমেন এ্যাওয়ার্ড-২০১৮ প্রাপ্ত বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার শাহনাজ পারভীন বলেন, দিন দিন আমাদের সমাজে সহিংসতা বেড়েই চলেছে।

এর সুর্নিদিষ্ট কারন নিরুপনে দীর্ঘ গবেষণা দরকার। কারন আমাদের সমাজের ব্যর্থতাটা আসলে কি তা খতিয়ে দেখা উচিত। এই কর্মকর্তা মনে করেন, একেবারে প্রাথমিক ধারণায় যদি বলি তাহলে বলতে হয়, আমাদের চারপাশের পারিবারিক বন্ধন অত্যান্ত দুর্বল হয়ে গেছে। পারিবারিক বন্ধনকে শক্তিশালী করা হলে এই অবক্ষয় থেকে উত্তরণ করা সম্ভব।