বরিশালে ১১ নং ওয়ার্ডে ফারুক ও জাহাঙ্গিরের তান্ডবে আহত-২ 

0
234

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল নগরীর ১১ নং ওয়ার্ডে খাবারের পাওনা টাকা চাওয়ায় হোটেল ভাংচুর ও ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার রাত ১১ টায় নগরীর ১১ নং ওয়ার্ডের স্টিডিয়াম কলনিতে জয়নালের খাবার হোটেলে ঘটনাটি ঘটেছে । আহতরা হচ্ছেন, জয়নাল হাওলাদার (৭৫), তার ছেলে ইউনুস হাওলাদার এবং জামাতা শহিদুল (২১)।

আহত সূত্র জানায়, ঘটনার দিন রাতে ঐ এলাকার মৃত মজিদ হাওলাদারে দুই কুসন্তান ফয়সাল হাওলাদার ও জাহাঙ্গির হাওলাদার নগরীর স্টেডিয়াম কলনির হোটেল ব্যবসায়ী জয়নালের খাবার হোটেলে গিয়ে ভাত ও পিঠা খায়। এ সময় হোটেলে থাকা জয়নালের পুত্র ইউসুফ তাদের কাছে খাবারের দাম চায়। কিন্তু ফারুক ও জাহাঙ্গির টাকা দিতে অন ইচ্ছুক প্রকাশ করে। এ নিয়ে ইউসুফের সাথে তাদের বাক বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে ফারুক ও জাহাঙ্গির মোবাইল করে এলাকার চিহ্নিত ৮/১০ জন সন্ত্রাসী ও মাদব ব্যবসায়ী এনে জয়নালের দোকান ভাংচুর করে ও ইনুস ও তার পিতা জয়নালকে এলোপাথারী পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম করে। এতে জয়নালের মাথায় গুরুতর জখম হয়। পরে তাদের ডাকচিৎকার শুনে জয়নালের মেয়ে সীমা’র স্বামী শহিদুল ইসলাম ঘটনা স্থলে ছুটে গেলে তাকেও সন্ত্রাসীরা এলোপাথারি পিটিয়ে আহত করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা দোকান ভাংচুর করে টাকা পয়সা নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত পরিবারের সদস্য আল-আমীন জানায়, জাহাঙ্গির ও ফারুক এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা করে। অপর দিকে অবৈধ্য ভাবে জাহাঙ্গির সুদের ব্যবসা করে। সে এলাকায় কাউকে তোয়াক্কা করে না।

এ ঘটনায় ১১নং ওয়ার্ড কাউনন্সিলর মজিবুর রহমানের কাছে আহতরা অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জানায়। এ ঘটনায় কাউন্সিলর মজিবুর রহমানের মুঠো ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে ফোনটি রিসিভ হয়নি।