বরিশাল শেবাচিমের পরিচালক বাকির’র নির্দেশে ডাক্তারদের ফাঁকিবাজী ! 

0
93

কাওসার মাহামুদ মুন্না ॥ অবশেষে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের বহিঃবিভাগের চিকিৎসক ডাঃ রেজওয়ানুর আলম রায়হানের ছুটি নিয়ে নাটকের অবসান ঘটল । গত সোমবার ২৮ ও ২৯ জানুয়ারি বিশেষ প্রয়োজনে ডাঃ রেজওয়ানুর আলম ছুটি নিয়েছেন বলে জানা যায় ।

কিন্তু খোজ নিয়ে দেখা গেছে ছুটির আবেদনে পরিচালোক কিংবা দায়িত্বে থাকা ছুটি অনুমদিত কারো সিল স্বাক্ষর নেই। ছুটির অনুমতি না নিয়েই উধাও ডাঃ রেজওয়ানুর আলম রায়হান । এ দিকে ডাঃ রেজওয়ানুর আলম ছুটি দেখিয়ে প্রাইভেট চেম্বারে রোগী দেখছেন বলে জানা গেছে।

অপর দিকে তার কর্মস্থলে শান্তা নামের এক ডাক্তারকে বসিয়ে রোগিদের চিকিৎসা প্রদান করেন । রায়হানের নির্দেশে তার স্বাক্ষর ও সিল ডাঃ শান্তা ব্যবহার করে আসছেন। এদিকে শান্তাকে দিয়ে রায়হান কমিশন প্রাপ্ত বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগীদের অহেতুক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে বাধ্য করার অভিযোগ উঠে।

গত রবিবার ডাঃ রায়হান কর্মস্থলে থাকা কালিন সময় বাবুগঞ্জ থেকে চিকিৎসা নিতে আসা রোগির স্বজন জাকারিয়া জানান, রোগির সমস্যা শুনার পূর্বেই ডাঃ রায়হান বেশ কিছু পরিক্ষা-নিরিক্ষার জন্য কমিশন প্রাপ্ত এ্যাপোলো ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে পাঠান কিন্তু ওই রোগির স্বজন প্রাইভেট ডায়াগনস্টিকে না গিয়ে মেডিকেলে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়ে রিপোর্ট দেখাতে যায় । পছন্দের ডায়াগনস্টিকে না যাওয়ায় রিপোর্ট ছুড়ে ফেলেন ডাক্তার রায়হান । তার বোনের সাথে খারাপ আচরন করে । রোগীদের সাথে প্রায় সময়ই ডাঃ রেজওয়ানুর আলম রায়হান দূর্বব্যহার করে ।

এ বিষয়ে ২৮ জানুয়ারি শেবাচিম হাসপাতালের পরিচাল ডাঃ বাকির হোসেনের স্বাক্ষাৎতকার নিতে গেলে ২ বার ব্যস্ততা বলে ফিরিয়ে দেয় তার কার্যালয় থেকে । পরবর্তিতে রাত ৮টা ২৩ মিনিটে ডাঃ বাকিরের মোবাইলে ফোন করলে তিনি জানায় ২৮ ও ২৯ জানুয়ারি ছুটি নিয়েছে ডাঃ রেজওয়ানুর আলম রায়হান ।

এ বিষয়ে রেজওয়ানুর আলম রায়হান জানান, ছুটি কিংবা দুর্নীতি যে কোন বিষয় দেখার জন্য সরকারি কর্মকর্তা ও তার পরিচালক আছেন তারাই এ বিষয় দেখবেন বলে দাবী তার ।

এ বিষয়ে শে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাক্তার বাকির জানায়, রায়হান ২ দিনের ছুটি নিয়েছেন। ছুটির আবেদন পত্রে পরিচালকের সিল স্বাক্ষরের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন তাতে তার কোন সিল বা স্বাক্ষর নেই। তিনি আরো বলেন ডাক্তার রায়হানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দূর্নীতির তথ্য নিয়ে সময়ের বার্তা’র সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানান ।