বরিশাল-৫ আসনে শেষ মুহূর্তে জমজমাট নির্বাচনি প্রচারণা

0
293

দরজায় কড়া নাড়ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) বরিশাল-৫ (সদর) আসনের প্রার্থীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। বিভিন্ন দলের শোভাযাত্রা, সমাবেশ আর প্রচার প্রচারণায় উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল নগরী।
বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) দিনভর নগরীজুড়ে প্রচারণা চালান আ’লীগ, বিএনপি এবং হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী এবং তাদের কর্মী-সমর্থকরা। বাসা-বাড়ি, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে ভোটারদের কাছে ভোট প্রার্থনা, লিফলেট বিতরণ, মাইকিংয়ে নগরীতে ছড়িয়ে পড়ে নির্বাচনী উত্তাপ। বিশেষ করে বিকেলে সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লার নেতৃত্বে নৌকা প্রার্থী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুকের সমর্থনে নগরীতে বিশাল মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা নগরীতে আলোড়ণ সৃষ্টি করে। হাজার হাজার নেতাকর্মী নিয়ে নগরী প্রদক্ষিন করে এ শোভাযাত্রাটি।

এর আগে নৌকার প্রার্থী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীমকে জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষ থেকে সমর্থন দিয়ে নিজের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন জাতীয় পার্টির মর্তুজা আবেদীন। এ সময় মর্তুজা আবেদীন বলেন- এতে মহাজোটের ঐক্য আরও দৃঢ় হবে। সেখানে উপস্থিত থাকা নৌকার প্রার্থী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম লাঙ্গলের পূর্ণ সমর্থনে নৌকার ভোট বৃদ্ধি পাবে বলে আশবাদ ব্যক্ত করেন।

এদিকে দুপুরে বিএনপি প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার সায়েস্তাবাদ এলাকায় অনেকটা কর্মী-সমর্থকহীন গণসংযোগ করেছেন। এ সময় সেখানে ব্যাপক পুলিশি নজরদারি ছিল বলে অভিযোগ করেন সরোয়ার। তবে সরোয়ার সাংবাদিকদের কাছে, প্রচারণায় বাধার কথা তুলে ধরে ৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষে ভোট দেয়ার জন্য জনগনকে আহবান জানান।

অন্যদিকে হাতপাখার নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে নগরী প্রদক্ষিণ করেন দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে। বিকেল ৩টায় তারা নগরভবনের সামনে বিশাল জনসভা করে দলটি। হাতপাখা প্রতিকের প্রার্থী মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম সমাবেশে বলেন, ‘ভোট চুরির চেষ্টা করা হলে জনতা কঠোর হস্তে দমন করবে।’