বহিস্কারাদেশ বহাল তবু আ’লীগের হয়েই লড়বেন সেই সাজু

0
162

বরিশাল।।

বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট ওবায়েদউল্লাহ সাজু। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি বিকৃতির অভিযোগে তৎকালীন ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন। দল থেকে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না হলেও বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সভাপতি পদে অ্যাডভোকেট সাজুকে সমর্থন দেয়ায় আদালত পাড়ায় বইছে সমালোচনার ঝড়। বিতর্কিত ব্যক্তিকে সমর্থন দেয়ায় আওয়ামী লীগ ও সমমনা আইনজীবীদের বড় একটি অংশের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

 

তবে ওবায়েদউল্লাহ সাজুকে সভাপতি প্রার্থী করায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সমর্থিত প্রার্থীর জয়ের পথ অনেকটাই সহজ হয়েছে বলে মনে করছেন বিএনপি সমমনা আইনজীবীরা। এবার আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কোনো প্যানেল কিংবা ব্যানারে না হলেও তাদের এ অভ্যন্তরীণ কোন্দল কাজে লাগিয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ের আশা করছেন বিএনপি সমমনা আইনজীবীরা। জেলা বিএনপির নেতা ও আইনজীবী সমিতির বর্তমান সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোখলেসুর রহমান বাচ্চু জানান, অ্যাডভোকেট ওবায়েদউল্লাহ সাজু গত এক বছর ধরে আইনজীবী সমিতির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এ সময় তিনি আইনজীবীদের স্বার্থবিরোধী কোনো কাজ করেননি। তবে একটি মামলা করে তার (ওবায়েদউল্লাহ সাজু) নিজ দলের মধ্যেই তিনি সমালোচিত হন।

 

আসন্ন নির্বাচনে ওবায়েদউল্লাহ সাজুকে সভাপতি প্রার্থী করায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সমর্থিত প্রার্থীর জয়ের পথ অনেকটাই সহজ হয়েছে বলে মনে করেন আইনজীবী সমিতির বর্তমান সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোখলেসুর রহমান বাচ্চু। অ্যাডভোকেট ওবায়েদউল্লাহ সাজু জানান, গত এক বছরে আইনজীবী সমিতির অনেক উন্নয়ন কাজ হয়েছে। কিছু কাজ এখনও অসমাপ্ত রয়েছে। অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার প্রয়োজন। তাই আসন্ন নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ তাকে সমর্থন দেয়ায় কৃতজ্ঞতা জানান। সমালোচনার বিষয়ে অ্যাডভোকেট ওবায়েদউল্লাহ সাজু বলেন, ৫ জনের ৫ রকমের মত থাকতেই পারে। তবে ভোটে এসব প্রভাব পরবে না। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সর্মথন দেয়ায় এবার বিপুল ভোটে বিজয়ের আশা করছেন সাজু। জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন কাবুল জানান, ওবায়েদউল্লাহ সাজু গত এক বছরে আইনজীবী সমিতির অনেক উন্নয়ন করেছে। এসব কারণে আইনজীবীদের মধ্যে তার জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

 

সব কিছু বিবেচনা করেই অ্যাডভোকেট সাজুকে সমর্থন দিয়েছে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ। উল্লেখ, এক শিশুর আঁকা ছবিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবমাননা করার অভিযোগে বরিশালের আগৈলঝাড়ার তৎকালীন ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে গত ৭ জুন মামলা করেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদউল্লাহ সাজু। ওই মামলায় গত ১৯ জুলাই বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন করেন গাজী তারিক সালমন। মামলায় ইউএনও তারিক সালমানকে প্রথমে কারাগারে পাঠান তৎকালীন চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আলী হোসাইন। ২ ঘণ্টা পর বিচারক ফের তাকে জামিনের আদেশ দিলে ১০ হাজার টাকা বেলবন্ডে আদালতের হাজতখানা থেকে মুক্তি পান তিনি।

 

এ ঘটনা গণমাধ্যমে এলে দেশ-বিদেশে তোলপাড় শুরু হয়। ইউএনও গাজী তারিক সালমনকে হাজতবাসের ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের অভ্যন্তরে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান খোদ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক পর্যায়ে গত ২১ জুলাই সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে দলীয় বৈঠকে আওয়ামী লীগ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।