বাবুগঞ্জে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-৬ ॥ আটক -২

0
65

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ধান কাটাকে কেন্দ্র করে বাবুগঞ্জের চাঁদপাশা ইউনিয়নে একই পরিবারের ৬ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। আহতদেরকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার আরজিকাপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর খালেক খান (৬০) এর কৃষি আবাদকৃত জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে ঐ গ্রামের খলিল ঘরামি, খালেক ঘরামি, কালাম বিশ্বাস, কামাল বিশ্বাস ও পারুল বেগমের সাথে। পূর্বে আদালতে মাধ্যমেও আব্দুর খালেক খানের কাগজ পত্র সঠিক থাকায় আদালত তার পক্ষে রায় প্রদান করে। কৃর্ষি আবাদি জমিতে আব্দুর খালেক খান ধান রোহন করে।

কিন্তু প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় ১২ ডিসেম্বর (বুধবার) সকালে বিবাদীয় জমির ধান কাটে লাঠিয়াল বাহিনি নিয়ে। এ সময় ধান কাটা বাধা দিতে ছুটে আশে আব্দুল খালেক খান ও তার সন্তান জাকির হোসেন খান (৪০), সাইফুল আলম খান (৩৪), রাজিয়া বেহম(২৮), ইমরান (২৪) ও আনোয়ার সরদার (৩২)। এ সময় দুই গ্রুপের ভিতর বাকবিতান্ডা হয়। এক পর্যায়ে খলিল ঘরামি, খালেক ঘরামি, কালাম বিশ্বাস, কামাল বিশ্বাস ও পারুল বেগমের নেতৃত্বে জলিল, আরিফ, রুসিয়া বেগম, জাহাঙ্গির, আলমগির, আজাগার, শাহি বেগম, নুপুর সহ আরো অজ্ঞাত আরো ১০/১৫ জনে মিলে লাঠি সোটা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে এবং ধারালো দেশিও অস্ত্র দা, কাচি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে তাদের ডাক চিৎকার শুনে স্থানিয়রা ঘটনা স্থলে ছুটে গিয়ে আহতদেরকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে ঘটনা স্থল থেকে খলেক ঘরামি ও জাহাঙ্গিরকে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ আটক করে। এ ঘটনায় এয়ারপোর্ট থানায় মামলা দায়ের করার হয়েছে বলে জানান সাইফুল আলম।