বিয়ানীবাজারে খালাতো ভাইয়ের সাথে বেড়তে এসে বাড়ি ফেরা হলো না আব্দুল্লাহ’র

0
186

বড়লেখা থেকে সমছ উদ্দিন।।

সিলেট-বিয়ানীবাজার অভ্যন্তরিণ মহাসড়কের মেওয়া মায়ন চত্বর এলাকায় রোববার বিকাল ৫টার দিকে যাত্রিবাহী বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ জনতা সড়ক অবরোধ করলে দুই ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। এতে ঘটনাস্থল এলাকার উভয় পার্শ্বে দীর্ঘ যানজট দেখা দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
তথ্যসুত্রে জানা যায়, উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের দেউলগ্রাম হাফিজিয়ার মাদ্রাসার ছাত্র আব্দুল্লাহ (২০) খালাতো ভাইয়ের সাথে মেওয়া এলাকায় বেড়াতে আসে।

মেওয়া মায়ন চত্বরের উপকণ্ঠে সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় বিয়ানীবাজার থেকে ছেড়ে আসা যাত্রিবাহী ফাতিমা এণ্ড আনিফা এন্টারপ্রাইজ নামের (সিলেট ব ১১-০০৫৪) বাসটি তাকে ধাক্কা দেয়। এ ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু ঘটে।

ছেলেটির মাথা খুলি ফেটে সড়ক জুড়ে মগজ ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং ঘাতক বাস জব্দ করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলে দুই ঘন্টা পর সড়ক থেকে বিক্ষুব্ধ জনতার অবরোধ তুলে নেয়। এ সময় সড়কের উভয় পার্শ্বে দীর্ঘ যান জট দেখা দেয়। নিহত আব্দুল্লাহ শেরপুর জেলার নোয়ালী পাড়া কুড়ির গ্রাম এলাকার হাবিবুর রহমানের  পুত্র।
চালক ও হেল্পার পালিয়েছে জানিয়ে বিয়ানীবাজার থানার এসআই পরিমল দে বলেন, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে।