বেনাপোলে বিজিবির সিও কর্তৃক সাংবাদিক পেটানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন

0
69

বেনাপোল থেকে হাসানতামিম।।

যশোরের বেনাপোলের চেকপোস্ট এলাকায় বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের দ্বায়িত্বপালনে অনিয়ম নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম এর স্টাফ রিপোর্টার আজিজুল হককে বিজিবি ক্যাম্পে ডেকে নিয়ে বেধড়ক মারপিট ও অকথ্য গালিগালাজের প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠেছে বেনাপোলের স্থানীয় সাংবাদিক মহল।এই ন্যাক্কার জনক ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তারা শুক্রবার সন্ধ্যার পর মানববন্ধন সহ সভা সমাবেশ শেষে প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ নিন্দীত দুঃখজনক ঘটনাটি জানান।

“বেনাপোল সীমান্তে অরহ্মিত বাংলাদেশ প্রবেশ দ্বার” শিরোনামে বাংলানিউজ এর স্টাফ রিপোর্টার আজিজুল হকের একটি রিপোর্ট বৃহষ্পতিবার ৩ আগস্ট প্রকাশিত হয়।এতে নোম্যান্সল্যান্ড এলাকায় দুই দেশের সীমান্ত রহ্মায় দ্বায়িত্বরতদের ধরন তুলে ধরা হয়েছিলো।ভারতীয় সীমান্ত রহ্মী বাহিনী ও কাস্টমস্ কর্মকর্তারা নিজ দেশের প্রবেশ দ্বারে সার্বহ্মনিক দ্বায়িত্ব পালন করলেও বাংলাদেশের প্রবেশ দ্বার গুলো পাওয়া যায় অরহ্মিত।

বিজিবি সদস্যরা নিয়মমত দ্বায়িত্ব পালন করেনা বলে যাবতীয় তথ্য প্রমান নিয়ে রিপোর্টটি লেখেন সাংবাদিক আজিজ।রিপোর্ট প্রকাশ করার আগে বিজিবির উর্দ্ধতনদের সাথে বিষয়টি জানিয়ে মতামত গ্রহন করার জন্য বারংবার যোগাযোগ করলেও তিনি সংযোগ পাননি বলে জানা যায়।অবশেষে রিপোর্ট টি প্রকাশ হলে ওইদিন বিকালে ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুল ওহাব তাকে সিও সাহেব দেখা করতে বলেছেন তাকে ডাকতে পাঠিয়েছেন বলে জানান।

সে অনুযায়ী শুক্রবার ৪ আগস্ট আইসিপি বিজিবি ক্যাম্পে অন্য একজন সাংবাদিক সহ দেখা করতে গেলে অন্য সাংবাদিক কে চলে যেতে বলে আজিজুলকে অশ্রাব্য ভাষায় গালি গালাজ শুরু করেন ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়ন কমান্ডিং অফিসার(সিও) লেঃ কর্নেল আরিফ।

এক পর্যায়ে তিনি বুট দিয়ে বুকে পিঠে লাথি মেরে আজিজুলকে মাটিতে ফেলে দেন বলে জানা যায়। রিপোর্টের প্রমান স্বরুপ ভিডিও ফুটেজ ছবি,ভয়েস রেকড সহ তথ্য উপাত্ত গুলো দেখাতে চাইলে তিনি অগুলো না দেখেই তুই তোকারী করে আজিজকে বের হয়ে যেতে বলে সাথে মামলা দিয়ে পুলিশে দেওয়ার ভয় দেখান।

এ বিষয়ে লেঃ কর্নেল আরিফের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সংবাদকর্মীদের জানান,আজিজুল হক যে রিপোর্ট করেছেন সেটা ঠিক নয় ওনাকে ক্যাম্পে ডেকে জিঙ্গাসা করা হয়েছে কোনরকম মারধর করা হয়নী।এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন শার্শা প্রেসক্লাব সভাপতি আব্দুল মুননাফ,সাধারন সম্পাদক ইয়ানুর রহমান,বেনাপোল বন্দর প্রেস ক্লাব সভাপতি কাজিম উদ্দিন,বাগআঁচড়া প্রেসক্লাব সভাপতি মুকুল,সাধারন সম্পাদক আবু সাইদ,লোক সমাজ পত্রিকার রিপোর্টার মনির হেসেন ও বাংলানিউজের যশোরের রিপোর্টার উত্তম ঘোস।সাংবাদিকদের উপর নির্যাতন ও হয়রানী যেন প্রতিদিনকার নিত্ত ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। অবিলম্বে এই অবস্থার অবসান ঘটাতে সকলকে ঐক্যবধ্য হওয়ার আহব্বান জানানো হয়েছে বেনাপোলে অনুষ্ঠিত সাংবাদিকদের মানব বন্ধন থেকে।