লাথি মেরে দুস্থ তাড়ালেন মৎস কর্মকর্তা সঞ্জীব সন্ন্যামত (দেখুন ভিডিও)

0
115

সময়ের বার্তা ।।

জব্দকৃত জাটকা বিতরণকালে গরিব-এতিমদের মারধর করেছেন বরিশাল সদর উপজেলা মৎস কর্মকর্তা সঞ্জীব সন্ন্যামত। এরকমই একটি ভিডিও এসে পৌছেছে বরিশালট্রিবিউনের কাছে। সেখানে দেখা গেছে, বিশৃঙ্খলভাবে মাছ বিতরণ করতে গিয়ে আগত এতিম দুস্থদের ঠেকাতে পারছে না মৎস কর্মকর্তা। শেষে বুড়ো ও শিশুদের উপর চরাও হন তিনি। লাথি-ঘুষি ও গালাগাল দিতে থাকেন মাছ প্রত্যাশীদের।

এসময়ে বরিশাল সদর নৌ থানা পুলিশ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: বেল্লাল হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলেও গরিব-এতিমদের বিশৃঙ্খলারোধে কোন কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

উল্লেখ্য, বরিশালের হিজলা উপজেলা সংলগ্ন মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে ৪৫ মন জাটকা জব্দ ও একজনকে আটক করে নৌ-পুলিশ। সোমবার সকালে জব্দকৃত জাটকাগুলো বিভিন্ন এতিমখানা ও গরীব-দুস্থদের মাঝে বিতরণ করা হয়। এসময়ে এমন আচরণ করেন ওই সরকারি কর্মকর্তা।

মূলত রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্ডন্ত বরিশালের হিজলার বাউশিয়া সংলগ্ন মেঘনা নদীতে অভিযান চালায় বরিশাল সদর নৌ থানা পুলিশ।

পুলিশের অভিযান টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় আরোহন ও পরিবহন নিষিদ্ধ একটি ট্রলার বোঝাই ৪৫ মন জাঁটকা সহ ইব্রাহিম বেপারীকে আটক করে নৌ পুলিশ। আটক ইব্রাহিম বেপারী বাউশিয়া এলাকার মৃত কাঞ্চন ব্যাপারীর ছেলে।

বরিশাল নৌ পুলিশের পরিদর্শক আবু তাহের জানান, সকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হুসেইনের ভ্রাম্যমান আদালত আটক ইব্রাহীমকে ৫ হাজার টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করেন এবং জব্দকৃত ট্রলারটি নিলামে বিক্রির আদেশ দেন।

একই সাথে জব্দকৃত জাঁটকা বিভিন্ন লিল্লাহ বোডিং, এতিমখানা এবং অসহায় দুঃস্থদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরন করা হয় বলে জানিয়েছেন বরিশাল নৌ পুলিশের পরিদর্শক আবু তাহের।