‘শিক্ষার্থীদের সময় নষ্ট করছে ফেইসবুক’

0
71

সময়ের বার্তা ।।

ফেইসবুক শিক্ষার্থীদের সময় নষ্ট করছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষাবিদ ও লেখক ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। তিনি বলেন, ‘ফেইসবুক ব্যবহারের ফলে শিশুরা সময়ের ফাঁদে পড়ছে। যা তাদের শিক্ষা জীবনকে ব্যাহত করছে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত চারদিন ব্যাপী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের তৃতীয় দিন অনুষ্ঠিত ‘চিলড্রেন’স ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’শীর্ষক সেমিনারে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. জাফর ইকবাল বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সবারই সময় নষ্ট করছে। বিশেষ করে শিশুদের জন্য এর প্রকোপ আরও বেশি। কেননা, কোমলমতি শিশুরা না বুঝে শুনে ফেইসবুকে সময় ব্যয় করছে। ফলে তাদের পড়াশোনায় ব্যাঘাত ঘটছে।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, টেকনোলজি ব্যবহার করতে হবে। কিন্তু টেকনোলজিকে আমাদের ব্যবহার করতে দেয়া যাবে না।

প্রোগ্রামিং শিশুদের উদ্বুদ্ধ করতে জাফর ইকবাল বলেন,  প্রোগ্রামিং শিখতে আগ্রহ থাকাটা জরুরি। এজন্য ছোট ছোট কিছু স্টেপ জানতে হয়।  প্রোগ্রামিং মজার একটি বিষয়।

জাফর ইকবাল বলেন, বাবা-মাকে খুশি রেখে বই পড়তে হবে।  লুকিয়ে হলেও বই পড়তে হবে। মা-বাবা যদি বই পড়তে না দেন তাহলে রাতে টর্চ লাইট জ্বালিয়ে বা বাথরুমে গিয়েও বই পড়তে হবে। পাশাপাশি কোডিংয়ের কাজ করা যেতে পারে। বাবা-মা চান ভালো রেজাল্ট। এইটা কোনো ব্যাপার না। একটু ভালো করে পড়লেই ভালো রেজাল্ট করা সম্ভব।

সেমিনারের শুরুতে দুই খুদে বক্তা কোডিংয়ের বিষয়ে তাদের অভিজ্ঞতার জানায় সবাইকে। পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী নাশিতা জাইনা রহমান বলেন, ‘আম্মুকে কম্পিউটারে কাজ করতে দেখতাম। আমি মনে করতাম এসব কাজ বোরিং। এরপর আমিও কম্পিউটারে সময় কাটাতে শুরু করি। আমি কম্পিউটারে গেম খেলি। একদিন আমি আম্মুকে বললাম আমার একটি শুটিং গেম চাই যেখানে সিন্ড্রেলা থাকবে। আমি ভেবেছিলাম মা আমার কথা ভুলে গেছে বা মা পারে না। এর কিছুদিন পর আমি যে গেমটি চেয়েছিলাম মা তা বানিয়ে আমাকে দিল। আমি তো অবাক হলাম। মা বললো কোডিং করে মা গেমটি বানিয়েছে। আমি তখন কোডিং শিখতে চাইলাম। এ থেকেই আমার কোডিংয়ের শুরু।

ষষ্ঠ শ্রেণির খুদে বক্তা আনুভা চৌধুরী বলে ‘আমার প্রোগ্রামিং করতে অনেক ভালো লাগে। আমি একটি স্কুলে গিয়েছিলাম সেখানে গিয়ে অনেক শিশুকে প্রোগ্রামিং করতে দেখেছি। তার এর জন্য স্ক্র্যাচ নামের একটি সফটওয়্যার ব্যবহার করছে। আমি প্রোগ্রামিং আরো ভালো করে শিখবো।

আলোচনার এক ফাঁকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক মঞ্চে এসে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের সঙ্গে আলাপচারিতায় অংশ নেন। এসময় দুই ক্ষুদে শিক্ষার্থীসহ আরো কিছু শিশু-কিশোরদের নিয়ে ড্রোন দিয়ে ছবি তোলেন।