সরকারী সম্পত্তির মর্টগেজ রেখে কর্মাস ব্যাংকের ৪ কোটি টাকা ঋণ!

0
355

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সরকারী জমি মর্টগেজ রেখে চার কোটি টাকার ঋণ! এমন অভিযোগ বাংলাদেশ কর্মাস ব্যাংক এর ম্যানেজারের বিরুদ্ধে। বরিশাল নগরীর নথুল্লাবাদস্থ সেন্টার পয়েন্ট মার্কেট এর মালিক ইস্তাফিজুর রহমান মুন্নাকে বাংলাদেশ কর্মাস ব্যাংক বরিশাল শাখার বর্তমান ম্যানেজার আরিফুর রহমান সবুজ ও সাবেক ম্যানেজার বর্তমান এনআরবি ব্যাংকের ঢাকা অফিসের ম্যানেজার মোঃ মশিউর রহমান এর যোগসূত্রে ঋণ প্রদান করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ সূত্রে বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক এর বরিশাল বাজার রোড় শাখার নিকট বরিশাল নগরীর নথুল্লাবাদস্থ বাংলাদেশ সড়ক ও জনপথের প্রায় ২০শতাংশ জমি বন্ধক রেখে ৪ কোটি টাকা ঋণ প্রদান করেন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ব্যাংক ম্যানেজার আরিফুর রহমান সবুজের দাবী সেন্টার পয়েন্ট মার্কেট এর মালিক ইস্তাফিজুর রহমান মুন্না একা নন কাকে ঋণ দিবেন আর কাকে দিবেন না সেটা একান্ত ব্যাংক কর্তৃপক্ষের দেখার বিষয়।

তিনি আরো বলেন, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ইচ্ছা করলে সরকারী সম্পত্তি নন কোন কাগজপত্র মর্টগেজ না রেখেই ঋণ দেয়ার বিধান আছে বলে এই কর্মকর্তা দাবী করেন। বর্তমানে সেন্টার পয়েন্ট মার্কেট মালিক মুন্নার ২য় তলা নির্মানের চলমান কাজ বন্ধ রাখার জন্য বাংলাদেশ সড়ক ও জনপথের সম্পত্তি দাবী করে ইতিপূর্বে বরিশাল বিভাগের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা সেন্টার পয়েন্ট মার্কেট মালিক ইস্তাফিজুর রহমান মুন্নাকে নোটিশ প্রদান করেন এবং বরিশাল জেলা প্রশাসক সহ পুলিশ প্রশাসনের সংযোগিতা চেয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত আবেদন করেন।

এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রহমান মুকুল চিঠির বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, সরকারী সম্পত্তি উদ্বারের জন্য বাংলাদেশ সড়ক ও জনপদের কর্তৃপক্ষ তাদের কাছে আইনগত ভাবে যে সহযোগিতা চাইবেন থানা কর্তৃপক্ষ সকল সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত আছেন বলে জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ ব্যাংকের উর্চ্চপর্যয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, মর্টগেজ বিহীন কিংবা সরকারী সম্পত্তির উপর ঋণ প্রদানের কোন সুযোগ নাই। যদি কোন ব্যাংক ম্যানেজার বা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ঋণ প্রদানের প্রামান পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে জানান। মার্কেট মালিক ইস্তাফিজুর রহমান মুন্না মুঠোফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।