‘৫০ লাখ মানুষকে দশ টাকা দরে চাল দেয়া হবে তিন মাস’

0
99

সময়ের বার্তা ডেস্ক।।

শেখ হাসিনা বলেন, যেন খাদ্য ঘাটতি না হয় সেজন্য চাল আমদানির ওপর ২৮ ভাগ ট্যাক্স কমিয়ে ২ ভাগ করা হয়েছে। এরইমধ্যে ১৫ লাখ টন খাদ্য আমদানি করা হয়েছে।

তিনি চলতি বন্যায় নিহত শিশুসহ অন্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বলেন, পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। সবাইকে ত্রাণ পৌঁছে দেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, বন্যায় যাদের ঘরবাড়ি নষ্ট হয়েছে, তাদেরকে ঘর করে দেয়া হবে। ভূমিহীনদের স্থায়ীভাবে ঘরবাড়ি করে দেয়া হবে।

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, আমার বাবা(বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) দেশের মানুষকে বেশি ভালবাসতেন। তাই তিনি দেশের মানুষের জন্য জীবন দিয়েছেন। আমিও দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন ও কল্যাণে জীবন দিতে প্রস্তুত আছি।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত এ ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠানে এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, পানি সম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী।

প্রধানমন্ত্রী এসময় ২১ জন বন্যার্ত নারী পুরুষের হাতে সরাসরি ত্রাণসামগ্রী তুলে দেন। পরে স্থানীয় প্রশাসন ৯৭৯ জন বন্যার্তের মাঝে ত্রাণসামগ্রী তুলে দেয়।

প্রতিটি প্যাকেটে ৯টি আইটেম ছিল। এরমধ্যে দশ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক কেজি লবণ, এক কেজি চিনি, এক কেজি চিড়া, আধা কেজি মুড়ি, এক কেজি তেল এবং মোমবাতি ও দেয়াশলাই এক ডজন করে।