এয়ারপোর্ট থানা প্রেসক্লাবের নিন্দা ও প্রতিবাদ,যমুনা টেলিভিশনের সংবাদের পরিপ্রক্ষিতে দেয়া বক্তব্যে ক্ষুব্ধ….

0
168

স্টাফ রিপোর্টার ।। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেল পরিচালিত ফেসবুক পেজে গত ৩ এপ্রিল (শুক্রবার) যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত বরিশালের একটি সংবাদের পরিপ্রক্ষিতে পুলিশ বিভাগের দেয়া বক্তব্যে ক্ষুব্ধ এবং মর্মাহত হয়েছেন বরিশাল এয়ারপোর্ট থানা প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

শনিবার এক প্রেস বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি মো: নূরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক এম. লোকমান হোসা্ঈন এ অনুভূতি প্রকাশ করেন।

প্রেস বিবৃতি জানানো হয়- বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেল পরিচালিত ফেসবুক পেজে গত ৩ এপ্রিল যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত বরিশালের একটি সংবাদের পরিপ্রক্ষিতে পুলিশ বিভাগের দেয়া বক্তব্যের বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে। সংবাদটি কেবল যমুনা টেলিভিশন নয়, দেশের আরাে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু বক্তব্য দিতে গিয়ে পুলিশ বিভাগ যেসব বিষয়ের অবতারণা করেছে তা কোনভাবেই গ্রহণযােগ্য নয়।

অভিযােগকারীর অভিযােগ এবং অভিযুক্ত ব্যক্তির বক্তব্যসহ সংবাদ প্রকাশ করাই সংবাদকর্মীর কাজ। এক্ষেত্রে টেলিভিশন মিডিয়ার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল তাঁরা সরাসরি সবার বক্তব্যসহ সংবাদ প্রচার করে। এখানে রিপোর্টারের ব্যক্তিগত মন্তব্য করার সুযােগ নেই।

প্রচারিত সংবাদ সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট টেলিভিশন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবাদ পাঠানাে কিংবা প্রেস কাউন্সিলে অভিযােগ করার সুযােগ রয়েছে। পুলিশ বিভাগ সেরকম কিছু করেছে কিনা আমাদের জানা নেই। কিন্তু বক্তব্যের নামে যেভাবে ঢালাও কিছু নিজস্ব মন্তব্য ফেসবুক পেজে শেয়ার এবং সংশ্লিষ্ট সংবাদকর্মী কাওছার হােসেনকে ছােট করা হয়েছে তা কোনভাবেই কাম্য নয়। এতে করে সংশ্লিষ্ট সংবাদকর্মীকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন এবং তাঁর মানসম্মানের হানী ঘটানাে হয়েছে বলে মনে করে এয়ারপোর্ট থানা প্রেসক্লাবের সকল সদস্যবৃন্দ।

তারা আশাবাদ ব্যক্ত করে আরো জানান, ফেসবুক পেজ থেকে উক্ত লেখাটি দ্রুত মুছে ফেলে সংবাদকর্মী এবং পুলিশের মধ্যে চলমান সুসম্পর্ক বজায় রাখবে পুলিশ বিভাগ। নতুবা এব্যাপারে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে সংগঠনটি।