কেবল অপারেটরদের কারণে বছরে ১০-১২ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি: তথ্যমন্ত্রী

0
335

কেবল অপারেটর জিজিটালাইজড না হওয়ায় সরকার প্রতিবছর ১০ থেকে ১২ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। আজ রোববার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কেবল অপারেটিং সিস্টেম বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে টিভি গ্রাহক আছে প্রায় সাড়ে চার কোটি। কিন্তু কেবল অপারেটররা গ্রাহকসংখ্যা কম দেখাচ্ছে। এতে সরকার বছরে ১০ থেকে ১২ হাজার কোটি টাকার ভ্যাট থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কেবল অপারেটর জিজিটালাইজড না হওয়ায় সরকার এ রাজস্ব হারাচ্ছে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তথ্যমন্ত্রী বলেন, কেবল অপারেটরগুলো গত ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামে এবং চলতি বছরের জুনের মধ্যে সারা দেশে ডিজিটালাইজড করার কথা থাকলেও তা করেনি। তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের আরেকবার নির্দিষ্ট একটি সময় দেব। নির্দিষ্ট সময়ের পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডিজিটালাইজড করতে কত দিন সময় দেওয়া হবে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটি কেবল অপারেটরদের সঙ্গে কথা বলে সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হবে। তবে আমার মতে, আগামী এক বছরের মধ্যে কেবল অপারেটর ডিজিটালাইজড করা সম্ভব।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বর্তমানে কেবল অপারেটররা গ্রাহকদের কাছ থেকে ইচ্ছেমতো টাকা নিচ্ছে। ডিজিটালাইজড হলে সেটিও আমরা ঠিক করে দেব। তারা (কেবল অপারেটররা) নির্দিষ্ট এলাকার বাইরেও ব্যবসা করছে। ফলে অনেক সময় সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।’

বিএনপি প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতাদের বক্তব্য শুনলে মনে হয়, দলটি কাজ করে খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানের স্বার্থ রক্ষার জন্য। জনগণের স্বার্থ রক্ষায় তারা কোনো কাজ করে না।

‘জামিন পাওয়া খালেদা জিয়ার হক’, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়ার জামিন দেবেন কি দেবেন না, সেটি আদালতের বিষয়। তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া কয়েকটি মামলায় জামিন পেয়েছেন। এটিতে জামিন পাবেন কি না, সেটি আদালতের বিষয়।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত। বিএনপি যেভাবে বলছে তাতে মনে হয়, খালেদা জিয়াকে সরকার আটক রেখেছে। এই মামলা তো রাজনৈতিক মামলা নয়, এটি দুর্নীতির মামলা।

প্রসঙ্গত, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় নতুন করে জামিন আবেদন করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। কারাবন্দী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার প্রতিবেদন আগামী বুধবার বিকেল পাঁচটার মধ্যে জমা দিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্যকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।