ক্রিকেটে উন্নতি নেই বাংলাদেশের

0
289

বাংলাদেশের ক্রিকেট এখন যে পর্যায়ে রয়েছে, এরচেয়েও বেশি ভাল অবস্থানে থাকা উচিত ছিল। ক্রিকেটারদের কাছ থেকে বাংলাদেশী ভক্তদের আরও বেশি কিছু পাওনা ছিল। কিন্তু ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা নেই বলে বাংলাদেশ বিশ্ব ক্রিকেটে কাঙ্খিত মানে পৌঁছাতে পারেনি।

বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে এমন মন্তব্যই করেছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়। তার সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথও। আসন্ন বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে ইএসপিএন ক্রিকইনফো নির্মিত প্রোগ্রাম ‘কনটেন্ডারস’-য়ে কথাগুলো বলেছেন এই দুই সাবেক ক্রিকেট তারকা।

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের বাকি আর মাত্র ৬ দিন। বিশ্বকাপের এটি একাদশতম আসর হলেও বাংলাদেশের জন্য তা পঞ্চম বিশ্বকাপ। বিশ্ব ক্রিকেটের এই মঞ্চে বাংলাদেশের সাফল্য বলতে ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের মতো বড় দলের বিপক্ষে পাওয়া জয়।

২০০৭ সালে বাংলাদেশের কাছে হেরেই গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল ভারতকে। এই বিষয়টির উল্লেখ করে দ্রাবিড় বলেছেন, নিশ্চিতভাবে বাংলাদেশের কাছে ওই হারে আমাদের অনেক মূল্য দিতে হয়েছে। তবে ২০০৭ সালের পারফরম্যান্সের পর সবাই ভেবেছিল বাংলাদেশ উন্নতি করেছে এবং ভবিষ্যতে তারা ধারাবাহিকভাবে সাফল্য লাভ করবে।

কিন্তু ৮ বছর পরে এসে আমরা যখন কথা বলছি তখন বাংলাদেশের উন্নতি কিন্তু ততোটা চোখে পড়ার মতো নয়। বড় দলগুলোর বিপক্ষে এখনো তাদের ততটা সাফল্য নেই। বাংলাদেশের আরও জয় পাওয়া প্রয়োজন এবং তাদের ক্রিকেটার ও নিজ ক্রিকেটের ওপর আত্মবিশ্বাসী হওয়া উচিত। ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক মনে করেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা তাদের ভক্তদের জন্য খুব কমই ‘ইতিবাচক গল্প’ রচনা করতে পেরেছে।

দ্রাবিড়ের কথা সমর্থন করে গ্রায়েম স্মিথ বলেছেন, বাংলাদেশে ক্রিকেট যে উন্মদনা রয়েছে তাতে করে তাদের আরও ভাল ফল করা উচিত ছিল। কিন্তু তাদের খুব কমই বাম-হাতি স্পিনার রয়েছে এবং তাদের ব্যাটসম্যানরা প্রায়ই বল হিট করতে যায় এবং তা মিস করে, তাদের পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা নেই এবং যখন আপনি একজন দুর্দান্ত পেস বোলার কিংবা একজন দারুণ প্রতিভাবান ব্যাটসম্যানের দৃষ্টিতে বিচার করতে যাবেন তখন বাংলাদেশের ক্রিকেটে খুব বেশি উন্নতি চোখে পড়বে না। সব সময়ই তারা একই রকম থেকে গেছে এবং আপনি হয়তো ভাবতে গেলে বিস্মিত হবেন যে এটা কি তাদের কোচিং সম্পর্তিক সমস্যা নাকি ক্রিকেট সম্পর্কে তাদের নিজস্ব চিন্তাভাবনার বহিঃপ্রকাশ।