কয়েকটি দেশ ক্রয় আদেশ বাতিল করতে চাইছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

0
33

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন, করোনার প্রভাবে ইতালিসহ বেশ কিছু দেশ তাদের ক্রয়াদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে। রোববার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস ২০২০ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও হটলাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সব দেশ তো ক্রয়াদেশ বাতিল করছে না। বিশেষ করে ইতালিসহ কিছু দেশ বাতিল করতে চাচ্ছে। করোনার জন্য ইতালি খুব বড় রকমের বিধিনিষেধ দিতে যাচ্ছে। সঠিক সময়ে মাল না পাওয়ার কারণে তারা আদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে। আবার তারা বলছে পণ্য প্লেনে করে পাঠাও। তা তো সম্ভব হচ্ছে না। তাছাড়া যে সমস্ত দেশ নেবে তাদেরও করোনার ভয় আছে। সার্বিক অবস্থা আপনারা সবাই জানেন, সারা পৃথিবী একটা অস্থির সময় পার করছে। এর কিছুটা প্রভাব আমাদের অর্থনীতি ও আমদানির ওপর পড়বে। আমরা আশা করছি খুব শিগগিরই এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে পারব।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের কোন গার্মেন্টস শিল্প বন্ধ করে দেয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। গার্মেন্টস কর্মীদের সচেতন করা হচ্ছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, যেখান থেকে কাঁচামাল আনা হয় সেখানে সবকিছু দেখছি। সুখের বিষয় হলো চায়নাতে শ্রমিকরা আবার কারখানায় ফিরে গেছেন। তারা আবার নতুন করে শুরু করেছে। এর কিছুটা প্রভাব পড়েছে আমাদের আমদানির ওপর। সেটা কিভাবে পূরণ করা যায় সেই চেষ্টা চলছে। এর থেকেও আরেকটা সমস্যা আমাদের নজরে এসেছে। কিছু কিছু দেশ তারা তাদের ক্রয়াদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে অথবা অন্যকোন খানে দিয়ে দিচ্ছে। ফলে আমার মনে হয় সেখানে আমাদের কিছুটা সমস্যা হবে। যোগাযোগ বন্ধ, ট্রাভেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তার একটা প্রভাব যখন সারা পৃথিবীতে পড়বে তখন আমাদের দেশেও পড়বে।