গাইবান্ধায় ও বরিশালে পেট্রোলবোমায় নিহত-৮

0
426
সময়ের বার্তা ।। দেশের বরিশাল ও গাইবান্ধায় বিএনপি-জামায়াতের চলমান অবরোধে আজ পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়ে একটি  যাত্রীবাহী বাস ও  ট্রাক পুড়িয়ে দিয়েছে  দুর্বৃত্তরা। এসময় চালক হেলপারসহ দুই জেলায় প্রায় ৮জন নিহত হয়েছেন। এসময়ে  আহত হয়েছেন আরা ২৮জন।

আগুনে দগ্ধ অন্তত ২৮ জনকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। এর মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১২ জনকে রমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

গাইবান্ধা ঢাকাগামী নাপু এন্টারপ্রাইজের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমায় দেয়া আগুনে চালক, হেলপার ও শিশুসহ ৫ জন নিহত হয়েছে। এতে দগ্ধ হয়েছে বাসের আরো ২৮জন যাত্রী।

শুক্রবার রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে জেলার তুলসীঘাট এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

দগ্ধ যাত্রীদের প্রথমে গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১২ জনকে রেফার করা হয়েছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রমেক)।  চিকৎসক সময়ের বার্তা ডটমকে জানান মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার আশরাফ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রাতে গাইবান্ধা থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিল নাপু এন্টারপ্রাইজ নামের একটি বাস। রাত ১১ টার দিকে গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের তুলসীঘাট এলাকায় দর্বৃত্তরা বাসটিতে পেট্রোলবোমা ছুড়ে মারে। এতে পুরো বাসটিতে আগুন ধরে যায়। অনেক যাত্রী বাসের জানালা দিয়ে লাফিয়ে নামার চেষ্টা করে। তবে জানালা বা দরজা খোলার আগেই যাত্রীদের সবাই দগ্ধ হয়। এসময় চালক ও হেলপার এবং শিশুসহ চারজন পুড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে একজন মারা যান।

পুলিশ জানিয়েছেন, দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করা সম্বাব হয়নি। এদিকে আজ শনিবার সকাল ৫টার দিকে
বরিশালের গৌরনদীতে একটি ট্রাকে পেট্রোলবোমা মারে ট্রাকটি জ্বালিয়ে  দিয়েছে দুর্বৃত্তরা । এ সময় দগ্ধ হয়ে তিন জন নিহত হয়েছেন।

গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন ও প্রত্যাক্ষদশীরা জানান, ট্রাকটি ফরিদপুর থেকে বরিশাল যাচ্ছিল। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গৌরনদীর মাহিলারা এলাকায় বাটাজোর বাজারের কাছে ওই ট্রাকটিতে পেট্রোলবোমা ছুড়ে পালিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। এসময় ট্রাকে আগুন ধরে গেলে চালকসহ ৩জন নিহত দগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন। তবে

তাৎক্ষিণভাবে নিহত ও আহত কার পরিচয় জানা যায়নি।