প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ

0
83

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে এক স্কুলছাত্রীকে (১৫) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত সোমবার (৯ মার্চ) রাতে উপজেলার পুনর্বাসন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রোববার (১৫ মার্চ) রাতে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে চারজনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করেছেন। মামলার পর রাতেই দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- উপজেলার পলশিয়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে জাকারিয়া (২০) ও একই গ্রামের রানা বাবু (১৬) ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে উপজেলার পলশিয়া গ্রামের রানা বাবু দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করাসহ প্রেমের প্রস্তাব দিত। তার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় সে ক্ষিপ্ত হয়। গত সোমবার (৯ মার্চ) রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ওই ছাত্রী ঘর থেকে বের হলে রানা বাবুসহ চারজন মিলে জোরপূর্বক তাকে পার্শ্ববর্তী সিরাজকান্দি গ্রামে নিয়ে যায়। পরে সেখানে রানা বাবু ও তার বন্ধু জীবনের সহযোগিতায় উপজেলার ৪নং পুনর্বাসন গ্রামের বাদশার ছেলে সুজন ও পলশিয়া গ্রামের খালেকের ছেলে জাকারিয়া ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর বিষয়টি কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়। পরে বিষয়টি তার পরিবারের কাছে জানায় ওই ছাত্রী।

ভূঞাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশিদুল ইসলাম জানান, চারজন সংঘবদ্ধ হয়ে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী গ্রাম সিরাজকান্দিতে নিয়ে জাকারিয়া ও সুজন তাকে ধর্ষণ করে। আটক রানা বাবু ও জাকারিয়া প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।

তিনি আরও জানান, ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার দুইজনকে সোমবার দুপুরে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।