ভোলায় দৌলতখানে চরপাতা ইউনিয়ানে জোর পূর্বক বসতবাড়ী দখলের চেষ্টা,অহত-৪ মালামাল লুট

মোঃফজলে আলম, ভোলা।।

ভোলার দৌলতখানে চরপাতা ইউনিয়ানের কাজীর হাট বাজারে খোরশেদ ব্যাপাড়ী বাড়িতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে বসতবাড়ী দখলের চেষ্টা করে।

এসময় সন্ত্রাসীরা হামলায় চালিয়ে একই পরিবারের ৪জনকে আহত করে লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। শুধু তাই নয় আহতদের প্রান নাশের হুমকী দিয়ে যাচ্ছে নিয়মিত।

এই ঘটনায় দৌলতখান থানা মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নিয়ে আহত পরিবারের লোকজনকে থানা থেকে পাঠিয়ে দেয়। এই ঘটনায় স্থানীয় ইউনিয়ান চেয়ারম্যান কে হামলা সম্পর্কে জিঙ্গাসা করলে তিনি এমন কোন ঘটনার খবর জানেনা বলে জানান।

জানায়ায়, দৌলতখানে চরপাতা ইউনিয়ানের কাজীর হাট বাজারে খোরশেদ ব্যাপাড়ী মৃত মফিজুল ব্যাপাড়ী বাড়ীতে স্থানীয় ভুমিদস্যুা মন্নানের উস্কানিতে গত সোমবার ৬ জুলাই দুপুরে চুন্নু, হাসিম,কামাল, সেলিম এর নেতৃত্বে প্রায় ৪০/৫০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল বাড়ীতে মাহলা চালায়।

এসময় তারা ঐ পরিবারের সবাইকে ঘর ছেড়ে অনত্র্য চলে য্ওায়ার জন্য বলে।

তাদেরকে প্রতিহত করার জন্য শামচ্ছুদ্দিন ঘর থেকে বেড় হয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাকে ব্যাপক মারধর করে। এসময় তাদের মারে তার দুই পা ভেঙ্গে যায়। পরে তাকে বাচাঁনোর জন্য পারুল বিবি (৪০),তার বোন বিউটি (১৫) ভাই আলাউদ্দিন(২০) এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদের সবাইকে ব্যাপক মারধর করে রেখে যায়।

পরে তাদেরকে ১মাসের মধ্যে ঘরবাড়ী ছেড়ে দেয়ার জন্য বলে । আহত আলাউদ্দিন (২০) বলেন,স্থানীয় মন্নান এর নেতৃত্বে আমাদের উপর এই মামলা করা হয়।

তারা এসময় আমাদের বাসা থেকে প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এর আগে তার নেতৃত্বে কাজীর হাট বাজারের দুইটি দোকান দখল করে নিয়ে যায়।

এই ঘটনার পারে আমরা দৌলতখান থানায় অভিযোগের জন্য গেলে তারা আমাদের অভিযোগ না নিয়ে আমাদেরকে পাঠিয়ে দেয়।শুধু তাই নয় ঐ সন্ত্রাসীরা ভোলা সদর হাসপাতালে এসে আমার অস্থুস্থ বোনের নাম কাটিয়ে দেয় এবং প্রতিনিয়ত হুমকী দিয়ে যাচ্ছে।

এব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন হাওলাদার বলেন, হামলা সম্পর্কে জিঙ্গাসা করলে তিনি বলেন আমার এলাকায় এমন কোন ঘটনা ঘটছে বলে জানা নাই।

এব্যপারে দৌলতখান থানার ওসি মীর খাইরুল কবির বলেন, চরপতার ঘটনাটি আশি শুনেছি। ওখানে আ”লীগের এক নেতা চুন্নু তাকে স্থানীয় এক লোকজন মারধর করে পা ভেঙ্গে দিয়েছে বলে দৌলতখান থানায় একটি মামলা করে তারা ।

তবে আর কেউ ঐ ঘটনায় কোন অভিযোগ নিয়ে আসেনি । আসলে আমরা তা আমলে নিয়ে ব্যবস্থা নিবো বলে জানান।