মুলাদী বিএনপি নেতা হান্নান কর্তৃক সরকারী গাছ লুট করে জমি দখলের চেষ্টা!

0
137

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মুলাদী শ্বশুরকে স্বামী সাজিয়ে ভূমি অধিগ্রহণের অর্থ আত্মসাতের মূলহুতা বিএনপির নেতা হান্নান এবার সরকারী গাছ লুট করে আত্মসাত করেন। এছাড়া বর্তমানে ব্রীজের পাশে থাকা সরকারী জমি দখলের পায়তারা করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত শনিবার এঘটনা ঘটে। সোস্যাল মিডিয়ায় হান্নানের গাছ কাটা ছবি ভারাইল হয়ে পড়লে বিপাকে পরেন হান্নান। এদিকে মিডিয়া ম্যানেজ করতে না পেরে মামলার ও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন হান্নান ও তার বির্তকিত ছেলে মিরাজ ওরফে চিটার মিরাজ।


মুলাদী আড়িয়াল খাঁ নদীর উপরে র্নিমাণাধীণ ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে কাচিচর-সাহেবেরচর দাখিল মাদ্রাসার সামনে রাস্তার পাশের সরকারী প্রায় ২০ থেকে ২৫টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছের বেশ কিছু গাছ কেটে নেন হান্নান সহ স্থানীয় চক্র। যাহার আনুমানিক মূল্য ৭০ হাজার টাকা। অভিযুক্ত কাচিচর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য হান্নান মাতুব্বর প্রথমে এবিষয় তিনি কিছুই জানেন না বলে দাবী করেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিতির ছবি ভাইরালের বিষয় বললে পরবর্তীতে শিকার করে বলেন,এগুলো মালিকানা গাছ। এদিকে তার বিতর্কিত ছেলে মিরাজ মুঠোফোনে হুমকি দিয়ে বলেন,যাদের গাছ তারাই কেটেছেন। তার বাবা শুধু সহযোগিতা করছেন।

সংবাদ প্রকাশ করলে বিষয়টি ভয়নক হবে বলে মুঠোফোনে হুমকি দেন। কাচিচর ইউপি সদস্য মো:কামরুজ্জামান বাবু বলেন, এবিষয় স্থানীয়রা জানালে, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছ কাটা দেখতে পায় এবং ব্রীজের জন্য ব্যহৃত সরকারের অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তি দখল করার জন্য হান্নানের নেতৃত্বে ইট,বালু ও সিমেন্ট রাখা হয়েছে।

বিষয়টি প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানাবেন বলে জানায়। বরিশাল জেলার মুলাদী উপজেলা অফিসার শুভ্রা দাস,বলেন সরকারী গাছ কাটা এবং সরকারী সম্পত্তি দখল চেষ্টা বৈআইনী।

বিষয় খতিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য. বরিশাল জেলার মুলাদী উপজেলাধীন নাজিরপুর ইউনিয়েন এর আড়িয়াল খাঁ নদীর উপরে র্নিমাণাধীণ ব্রীজের জন্য বেশ কিছু জমি অধিগ্রহণ করেন স্থানীয় সরকার। অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তির ক্ষতিপূরণের সময় হান্নান সহ একটি চক্র ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে সরকারের লাখ লাখ টাকা আত্মসাত করেন। যাহার অনুসন্ধান মূলক একটি সংবাদ প্রকাশ হয়েছে ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের ২০ তারিখ, দৈনিক আজকের সময়ের বার্তায়। বর্তমানে দুদক তদান্তধীন আছেন।