শেরে বাংলা দিবা-নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের কাছে জিম্মি সভাপতি

0
106

মোঃ রাকিব হাওলাদার ॥ দুর্নীতিবাজ শিক্ষকদের কাছে কাছে অসহয় স্কুল কমিটির ম্যানেজমেন্ট। নিজেদের ইচ্ছামত ক্লাস ও কোচিং বানিজ্য করে আসছেন স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সহ সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা। বরিশাল নগরীর কাউনিয়া ব্যাঞ্চ রোডের শেরে বাংলা দিবা-নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে চলছে প্রধান শিক্ষক বিক্রম চক্রবর্তী ও বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সেচ্ছাচারিতা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশ অনুসারে প্রতিটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পযর্ন্ত বিদ্যালয়ের পাঠদান থেকে শুরু করে, বিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম চালু রাখার বিধান। অথচ, এই বিদ্যালয়টির বেলায় নিয়ম-কানুন সম্পূর্ন উল্টো। শিক্ষকরা নামে মাত্র উপস্থিত থেকে মাস শেষে হাতিয়ে নিচ্ছেন বেতন ভাতা সহ নানান সুযোগ-সুবিধা। শেরে বাংলা দিবা-নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিক্রম চক্রবর্তী ও তার সহকারী শিক্ষক-শিক্ষিকারা বিকাল ৪ টা পযর্ন্ত ক্লাস না নিয়ে দুপুর ১২ থেকে ২ টার মধ্যে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করে দেন।

স্থানীয়রা জানান, বেশ কিছু দিন ধরে শেরে বাংলা দিবা-নৈশ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টিতে অনিয়ম হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দুপুর ২ টার মধ্যেই ছুটি দিয়ে দেন। অভিভাবকগণ জানান, বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান হতাশাজনক। শিক্ষার নামে বানিজ্য করে আসছেন প্রতিষ্ঠানটি,বিদ্যালয়ে নেই কোন সামাজিক সাংস্কৃতিক কার্যক্রম এমন কি জাতীয় দিবসগুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হচ্ছে না প্রতিষ্ঠানটিতে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সময়ের বার্তাকে জানান, আমাদের বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সংখ্যা কম। দুপুরের খাবার শেষ করে শিক্ষার্থী আর বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। তাই আমরা বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা ঠিক করেছি দুপুর ২ টা পযর্ন্ত ক্লাস নিয়ে তারপর শিক্ষার্থীরে ছুটি দিয়ে দিব। এভাবে না করলে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসতে চায় না, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা না আসলে কাদের ক্লাস করাবো? তাই আমরা ে ২য় পৃষ্ঠায় দেখুন