সিলেটে শিশু গৃহকর্মী নির্যাতন, স্বামীসহ শাবি শিক্ষিকা গ্রেফতার

সিলেটে ৯ বছরের এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন করে হাত ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যলয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও তার স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শিশুটিকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী খান।

তিনি জানান, সুরমা আবাসিক এলাকার একটি বাসায় শিশুটির উপর নির্যাতন হচ্ছে এমন খবর ৯৯৯ কল করে জানায় স্থানীয়রা।

পরে কোতোয়ালী পুলিশ সেখানে যায়। সেখানে গিয়ে গুরুতর অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গৃহকর্তী শাহ জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন ও তার স্বামী মাহমুদুল

কাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। খবর পেয়ে শিশুটির বাবা আবুল কাসেম রাতেই কিশোরগঞ্জ থেকে সিলেটে এসে অভিযুক্ত দুই জনের নামে কোতোয়ালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

পরে তাদের গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। এসময় শিশুটির বাবা আবুল কাশেম সাংবাদিকদের জানান, তার মেয়েকে পড়াশুনা করানোর কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে আসে গৃহকর্তী সাবিনা। গত ১৩ মাস ধরে সে এখানে আছে।

তিনি বলেন, সে তার মেয়ের কাছে নির্যাতনের বর্ণনা শুনে চমকে গেছেন। প্রতিদিন তাকে নির্যাতন করতো, খাবার দিতো না। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে পাইপ দিয়ে পিটিয়েছে তারা । তার হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। সারা শরিরে আঘাতের চিহ্ন। চুলের গোড়ায় ঘাঁ হয়ে গেছে তাদের নির্যাতনে।