স্বরূপকাঠীতে মুজিববর্ষ উদযাপন কমিটি ছাত্রলীগ যুবলীগ উপেক্ষিত, জামায়াত বিএনপির প্রভাব

0
34

স্বরূপকাঠী প্রতিনিধি :: পিরোজপুর স্বরূপকাঠীতে মুজিববর্ষ উদযাপন কমিটিতে ছাত্রলীগ যুবলীগকে বঞ্চিত করে শিবির যুবদলের লোজনকে স্থাণ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

স্বরূপকাঠী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার আব্দুল্লা বাবু মামুনের স্বাক্ষরিত মুজিববর্ষ উদযাপন কমিটির কোন উপকমিটিতে ঠাই হয়নি হাজার বছরের শ্রষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনকের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের স্বরূপকাঠী উপজেলা বা পৌর শাখার এবং যুবলীগের কোন নেতা কর্মীর।

বিপরীতে এসব উপকমিটিতে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নেতৃত্বের পাশাপাশি শিবির সমর্থক, যুবদল নেতা, এমনকি বিএনপির ক্ষমতায় চাকরি নেয়া কতিপয় পেশাধারী লোকজন স্থাণ পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান রনি দত্ত জয় অভিযোগ করেন, ইউএনও সরকার আব্দুল্লাহ বাবু মামুন জামায়াতের সমর্থক, তিনি জামায়েত বিএনপির লোকজন নিয়ে তার ইচ্ছামত জাতীর জনকের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন কমিটি ও নানান উপ কমিটি করেছেন।

যেখানে উপজেলা পরিষদ সম্পূর্ণ উপেক্ষিত ছিল। তিনি তার স্বাক্ষরিত এসব কমিটিতে ছাত্রলীগ যুবলীগের কোন নেতাকর্মীকে না রাখলেও ইনকিলাব প্রতিনিধি (শিবির সমর্থক), নয়াদিগন্ত প্রতিনিধি উপজেলা (যুবদলের যুগ্নআহবায়ক), ইত্তেফাক প্রতিনিধি(বিএনপির ক্ষমতায় চাকুরি প্রাপ্ত ও সাবেক যুবদল নেতা)সহ আমপার্টি, জাতীয় পার্টির লোকজনকে গুরুত্বপূর্ণ স্থাণে রেখেছেন।

উপজেলার যুবদলের আরেক যুগ্ন আহবায়ক গোলাম মোস্তফা এদের রাজনৈতীক পরিচয় নিশ্চৎ করেছেন। এবিষয়ে স্বরূপকাঠী পৌর শাখা যুবলীগের সভাপতি শিশির কর্মকার বলেন, ইউএনও কর্তৃক শতবার্ষিকী উদযাপন কমিটির বিভিন্ন উপ কমিটিতে ছাত্রলীগ যুবলীগ স্থাণ না পেলেও আমার ওয়ার্ডের শিবিরকর্মী এবং জাতীয় সংগিত ব্যাঙ্গ করে থানায় অাটক হওয়া ইনকিলাব প্রতিনিধি, উপজেলা যুবদল নেতা, বিএনপি নেতাদের স্থাণ দেয়ায় আমি ইউএনও সরকার আব্দুল্লাহ বাবু মামুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি মিস গাইডেড হয়ে একাজ করেছেন দাবী করেন। আমি এধরণের কর্মকার্ডে বিস্মিত, তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি যারা ইউএনওকে দিয়ে এধরণের নষ্ট রাজনিতী করছেন। তবে, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হামিদ বলে, হয়ত সসংবাদকর্মী হিসাবে তাদের রাখা হয়েছে, দলীয় প্রোগ্রামে দলের সকল নেতাকর্মী থাকবেন। এসব অভিযোগের বিষয়ে ইউএনও’র সরকারি ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করেন নি।